টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস- ডেইলী আপডেট- ২০২৪~~Hedaet Forum~~


Email: Password: Forgot Password?   Sign up
Are you Ads here? conduct: +8801913 364186

Forum Home >>> Forex Trade >>> টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস- ডেইলী আপডেট- ২০২৪

InstaForexSushantay
Team Member
Total Post: 3072

From:
Registered: 2014-11-17
 

EUR/USD: ইউরোপীয় সেশনে নতুন ট্রেডারদের জন্য ট্রেডিংয়ের পরামর্শ, ১৯ জুন

EUR/USD পেয়ারের ট্রেডিংয়ের পর্যালোচনা ও পরামর্শ যখন MACD সূচকটি শূন্যের উপরে উঠতে শুরু করেছিল তখন এই পেয়ারের মূল্য 1.0729-এর লেভেল টেস্ট করেছে, যা ইউরো কেনার জন্য সঠিক এন্ট্রি পয়েন্ট নিশ্চিত করেছে। ফলস্বরূপ, EUR/USD পেয়ারের মূল্য 25 পিপসের বেশি বেড়েছে। পরিস্থিতি নং 2 অনুযায়ী 1.0755-এ রিবাউন্ডের ক্ষেত্রে এই পেয়ার বিক্রি করায় প্রায় 15 পিপস লাভ হয়েছে। গতকাল, ইউরোজোনের ভোক্তা মূল্য সূচক, বিশেষ করে মূল মুদ্রাস্ফীতি প্রতিদেওন, এবং জার্মানি এবং ইউরোজোনের ZEW ইকোনোমিক সেন্টিমেন্ট সূচক সংক্রান্ত প্রতিবেদন এই পেয়ারের মূল্যের ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করেছে, যখন দুর্বল মার্কিন খুচরা বিক্রয় প্রতিবেদন দিনের দ্বিতীয়ার্ধে ইউরোর মূল্যের সক্রিয় বৃদ্ধির দিকে ঠেলে দিয়েছে৷ আজ, ইউরো ক্রেতারা দিনের প্রথমার্ধে চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হতে পারে কারণ ইউরোপীয় সেন্ট্রাল ব্যাঙ্কের কারেন্ট অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স ছাড়া অন্য কোনও উল্লেখযোগ্য প্রতিবেদন প্রকাশের কথা নেই৷ এটি মার্কেটের অস্থিরতার মাত্রাকেও খুব বেশি প্রভাবিত করবে না, তাই আমি দিনের প্রথমার্ধ থেকে খুব বেশি কিছু আশা করছি না। দৈনিক কৌশল হিসাবে, আমি পরিস্থিতি নং 1 এবং 2 বাস্তবায়নের উপর বেশি নির্ভর করব।


বাই সিগন্যাল পরিস্থিতি নং 1. আজ যখন মূল্য 1.0780 লেভেলে বৃদ্ধির লক্ষ্যে 1.0747 এর (চার্টে সবুজ লাইন দ্বারা চিহ্নিত) লেভেলে পৌঁছাবে, তখন আপনি ইউরো কিনতে পারেন। মূল্য 1.0780-এর লেভেলে গেলে, আমি মার্কেট থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছি এবং এন্ট্রি পয়েন্ট থেকে 30-35 পিপসের মুভমেন্টের উপর নির্ভর করে বিপরীত দিকে ইউরো বিক্রি করব। শুধুমাত্র বুলিশ কারেকশনের কাঠামোর মধ্যে এবং গতকালের সর্বোচ্চ লেভেলের টেস্টের প্রত্যাশার সাথে আপনি আজ ইউরোর দর বৃদ্ধির উপর নির্ভর করতে পারেন। কেনার আগে, নিশ্চিত করুন যে MACD সূচকটি শূন্যের উপরে রয়েছে এবং শূন্যের উপরে উঠতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নং 2। MACD সূচকটি ওভারসোল্ড জোনে থাকাকালীন সময়ে 1.0727 এর লেভেলে মূল্যের পরপর দুটি টেস্টের ক্ষেত্রেও আমি আজ ইউরো কিনতে যাচ্ছি। এটি এই ইন্সট্রুমেন্টের মূল্যের নিম্নগামী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করবে এবং বাজারদরকে বিপরীতমুখী করে ঊর্ধ্বমুখী করবে। আমরা 1.0747 এবং 1.0780 এর বিপরীতমুখী লেভেলে এই পেয়ারের দর বৃদ্ধির আশা করতে পারি।


সেল সিগন্যাল পরিস্থিতি নং 1. EUR/USD পেয়ারের মূল্য চার্টে লাল লাইন দ্বারা চিহ্নিত 1.0727 লেভেলে পৌঁছানোর পরে আমি ইউরো বিক্রি করার পরিকল্পনা করছি। লক্ষ্যমাত্রা হবে 1.0687 এর লেভেল, যেখানে আমি মার্কেট থেকে বের হয়ে অবিলম্বে বিপরীত দিকে ইউরো কিনতে যাচ্ছি (এই লেভেল থেকে 20-25 পিপস ঊর্ধ্বমুখী মুভমেন্টের আশা করছি)। এই পেয়ারের মূল্য দৈনিক সর্বোচ্চ লেভেলের কাছাকাছি কনসলিডেট করতে ব্যর্থ হলে এবং ইউরোজোনে প্রকাশিতব্য সামষ্টিক প্রতিবেদনের দুর্বল ফলাফলের ক্ষেত্রে EUR/USD-এর উপর চাপ বাড়বে। বিক্রি করার আগে, নিশ্চিত করুন যে MACD সূচকটি শূন্যের নিচে রয়েছে এবং এটি থেকে নিচে নামতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নং 2। MACD সূচকটি ওভারবট জোনে থাকাকালীন সময়ে 1.0747-এর লেভেলে মূল্যের পরপর দুটি টেস্টের ক্ষেত্রেও আমি আজ ইউরো বিক্রি করতে যাচ্ছি। এটি এই পেয়ারের মূল্যের ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করবে এবং বাজারদরকে বিপরীতমুখী করে নিম্নমুখী করবে। আমরা 1.0727 এবং 1.0687 এর বিপরীতমুখী লেভেলে এই পেয়ারের দরপতনের আশা করতে পারি।
​​​​​​​

চার্টে কী আছে: হালকা সবুজ লাইন - এন্ট্রি প্রাইস যেখানে আপনি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট কিনতে পারবেন গাঢ় সবুজ লাইন - আনুমানিক মূল্য যেখানে আপনি টেক-প্রফিট (TP) সেট করতে পারেন বা ম্যানুয়ালি মুনাফা নির্ধারণ করতে পারেন, কারণ এই লেভেলের উপরে আরও দর বৃদ্ধির সম্ভাবনা নেই। হালকা লাল লাইন - এন্ট্রি প্রাইস যেখানে আপনি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট বিক্রি করতে পারবেন গাঢ় লাল লাইন - আনুমানিক মূল্য যেখানে আপনি টেক-প্রফিট (TP) সেট করতে পারেন বা ম্যানুয়ালি মুনাফা নির্ধারণ করতে পারেন, কারণ এই লেভেলের নিচে আরও দরপতনের সম্ভাবনা নেই। MACD লাইন - মার্কেটে এন্ট্রি করার সময়, ওভারবট এবং ওভারসোল্ড জোন দ্বারা পরিচালিত হওয়া গুরুত্বপূর্ণ। গুরুত্বপূর্ণ: নতুন ট্রেডারদের মার্কেটে এন্ট্রির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় খুব সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেদন প্রকাশের আগে, মূল্যের তীব্র ওঠানামা এড়াতে মার্কেটের বাইরে থাকাই ভাল। আপনি যদি সংবাদ প্রকাশের সময় ট্রেড করার সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে ক্ষতি কমাতে সর্বদা স্টপ অর্ডার দিন। স্টপ অর্ডার না দিয়ে, আপনি খুব দ্রুত আপনার সম্পূর্ণ ডিপোজিট হারাতে পারেন, বিশেষ করে যদি আপনি মানি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ব্যবহার না করেন এবং বড় ভলিউমে ট্রেড করেন। এবং মনে রাখবেন সফলভাবে ট্রেড করার জন্য আপনার ট্রেডিংয়ের একটি স্পষ্ট পরিকল্পনা থাকতে হবে। বর্তমান বাজার পরিস্থিতির উপর ভিত্তি করে ট্রেডিংয়ের স্বতঃস্ফূর্ত সিদ্ধান্ত একজন দৈনিক ট্রেডারের জন্য সহজাতভাবে ক্ষতির কারণ হতে পারে।


https://ifxpr.com/4bibUgw





 

InstaForexSushantay

Team Member

Total Post: 3072
From
Registered: 2014-11-17
 

EUR/USD পেয়ারের ট্রেডিংয়ের পরিকল্পনা, ২০ জুন​​​​​​​ বুধবারের ট্রেডের বিশ্লেষণ: EUR/USD পেয়ারের 1H চার্ট গতকাল, স্বল্প মাত্রার অস্থিরতার মধ্যে EUR/USD পেয়ারের মূল্যের সামান্য বুলিশ প্রবণতার সাথে এই পেয়ার ট্রেড করা হয়েছে। অস্থিরতা এমন মাত্রায় কমে গেছে যেখানে দৈনিক ভিত্তিতে ট্রেড করার কোনো মানে হয় না। কোন মুভমেন্ট না হলে, কীভাবে কেউ লাভ করতে পারে? শুধু এই পেয়ারের মূল্যের মুভমেন্টই নয়, কোনো সংবাদ প্রতিবেদনও ছিল না। ইউরোজোন এবং মার্কিন অর্থনৈতিক ক্যালেন্ডারে তুলনামূলকভাবে তেমন গুরুত্বপূর্ণ কিছু ছিল না। এইভাবে, মার্কেটের ট্রেডারদের প্রতিক্রিয়া জানানোর মতো কিছুই ছিল না এবং পজিশন ওপেন করার কোন কারণ ছিল না। একটি ডিসেন্ডিং চ্যানেল গঠিত হয়েছে, কিন্তু এটি পরিস্থিতির উন্নতি ঘটায়নি। এই পেয়ারের মূল্য সম্ভবত কিছু সময়ের জন্য এই চ্যানেলের সীমানার মধ্যে থাকবে যেহেতু কার্যত সমস্ত টাইমফ্রেমে এই পেয়ারের মূল্য নিচের দিকে যাচ্ছে। বর্তমানে ইউরোর দরপতন যেকোনো ক্ষেত্রেই দর বৃদ্ধির চেয়ে বেশি আকর্ষণীয়। তাই, ট্রেডারদের শর্ট পজিশনের দিকে দৃষ্টি রাখা এবং সেল সিগন্যাল কাজে লাগানো উচিত। একই সময়ে, আরও এক বা দুই সপ্তাহের জন্য এই পেয়ারের মূল্য শান্তভাবে কারেকশন প্রদর্শন করতে পারে, কারণ EUR/USD পেয়ার কখনও শক্তিশালী মুভমেন্টের জন্য পরিচিত কোন ইন্সট্রুমেন্ট ছিল না। EUR/USD পেয়ারের 5M চার্ট 5 মিনিটের টাইমফ্রেমে শুধুমাত্র একটি ট্রেডিং সিগন্যাল তৈরি হয়েছিল। উপরের চার্টে যেমন দেখা গেছে, মূল্য সঠিকভাবে 1.0726-1.0733 রেঞ্জ থেকে বাউন্স করেছে, তারপরে মূল্য 15 পিপস বাড়তে সক্ষম হয়েছে। এই পেয়ারের মূল্য আরও গতিশীলতা দেখাতে ব্যর্থ হওয়ায় নতুন ট্রেডাররা দিনের বেলা এই সিগন্যাল থেকেই সামান্য লাভ করতে পারে। এটাও লক্ষণীয় যে বাই সিগন্যালটি আদর্শ হলেও, এর ফলে খুব কম লাভ হয়েছে। সমস্যাটি সিগন্যালের মধ্যে নয় বরং মার্কেটে কোন মুভমেন্ট দেখা যাচ্ছে না। বৃহস্পতিবারে ট্রেডিংয়ের পরামর্শ: এক ঘন্টার চার্টে, অবশেষে স্থানীয়ভাবে EUR/USD পেয়ারের মূল্যের নিম্নগামী প্রবণতা তৈরি হতে শুরু করেছে। আমরা এখনও আশা করি পেয়ারটির মূল্য 1.0600, 1.0450, এবং এমনকি 1.0200-এর লেভেলে নেমে যাবে। যাইহোক, এটা জানা গুরুত্বপূর্ণ যে এই পেয়ারের মূল্য মাত্র কয়েক সপ্তাহের মধ্যে এই লক্ষ্যমাত্রাগুলোতে পৌঁছাবে না; মূল্য মধ্যমেয়াদে এই লেভেলগুলোতে পৌঁছাতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, এই পেয়ারের মূল্য অবাধে আরেকটি সপ্তাহ ধরে কারেকটিভ মুভমেন্ট প্রদর্শন করতে পারে। তবুও, আমরা মধ্যমেয়াদে ইউরোর মূল্য বাড়ার কোনো কারণ দেখি না। বৃহস্পতিবার, ট্রেডাররা বুলিশ কারেকশনের ধারাবাহিকতার আশা করতে পারেন যেহেতু মূল্য 1.0726-1.0733 এর এরিয়া অতিক্রম করেছে। যাইহোক, মনে রাখবেন যে এই সপ্তাহে এই পেয়ারের মূল্যের অস্থিরতা কম থাকতে পারে। 5M চার্টের মূল লেভেলগুলো হল 1.0483, 1.0526, 1.0568, 1.0611, 1.0678, 1.0726-1.0733, 1.0797-1.0804, 1.0838-1.0856, 1.0888-1.0896, 1.0940, 1.0971-1.0981। আজ, ইউরোজোনের অর্থনৈতিক ক্যালেন্ডারে তুলে ধরার মতো কিছুই নেই। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বিল্ডিং পারমিট এবং প্রাথমিক জবলেস ক্লেইমস সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রকাশিত হবে যা গুরুত্বের দিক থেকে গৌণ হিসেবে বিবেচনা করা যায়। আমরা আশা করছি না যে এই প্রতিবেদনগুলোর প্রভাবে মার্কেটে শক্তিশালী প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হবে। ট্রেডিংয়ের মূল নিয়মাবলী: 1) সিগন্যাল গঠন করতে কতক্ষণ সময় নেয় তার উপর ভিত্তি করে সিগন্যালের শক্তি নির্ধারণ করা হয় (রিবাউন্ড বা লেভেলের ব্রেকআউট)। যত দ্রুত এটি গঠিত হয়, সিগন্যাল তত শক্তিশালী হয়। 2) যদি ফলস সিগন্যালের উপর ভিত্তি করে নির্দিষ্ট লেভেলের কাছাকাছি দুটি বা ততোধিক পজিশন খোলা হয় (যা টেক প্রফিট শুরু করেনি বা নিকটতম লক্ষ্যমাত্রায় পৌছায়নি), তাহলে এই লেভেলে প্রাপ্ত পরবর্তী সমস্ত সিগন্যাল উপেক্ষা করা উচিত। 3) ফ্ল্যাট মার্কেটের সময়, যেকোন পেয়ারের একাধিক ফলস সিগন্যাল তৈরি হতে পারে বা কোন সিগন্যালের গঠন নাও হতে পারে। যাই হোক না কেন, ফ্ল্যাট মুভমেন্টের ইঙ্গিত পাওয়া মাত্র ট্রেডিং বন্ধ করাই ভালো। 4) ইউরোপীয় সেশনের শুরু থেকে মার্কিন ট্রেডিং সেশনের মাঝামাঝি সময়ে ট্রেডগুলো খোলা উচিত যখন সমস্ত পজিশন ম্যানুয়ালি ক্লোজ করতে হবে। 5) আপনি 30-মিনিটের টাইম ফ্রেমে MACD সূচক থেকে সিগন্যাল ব্যবহার করে ট্রেড করতে পারেন, তবে এটি শুধুমাত্র শক্তিশালী অস্থিরতার মধ্যে ব্যবহার করা উচিত এবং একটি স্পষ্ট প্রবণতা থাকতে হবে যা ট্রেন্ডলাইন বা ট্রেন্ড চ্যানেল দ্বারা নিশ্চিত হওয়া উচিত। 6) যদি দুটি লেভেল একে অপরের খুব কাছাকাছি অবস্থিত হয় (5 থেকে 15 পিপস পর্যন্ত), সেগুলোকে সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লেভেল হিসাবে বিবেচনা করা উচিত। চার্ট কীভাবে বুঝতে হয়: সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লেভেলগুলো হল সেই লেভেল যা কারেন্সি পেয়ার কেনা বা বিক্রি করার সময় লক্ষ্যমাত্রা হিসাবে কাজ করে। আপনি এই লেভেলগুলোর কাছাকাছি টেক প্রফিট সেট করতে পারেন। লাল লাইন হল চ্যানেল বা ট্রেন্ড লাইন যা বর্তমান প্রবণতা প্রদর্শন করে এবং দেখায় যে এখন কোন দিকে ট্রেড করা ভাল হবে। MACD নির্দেশক (14, 22, এবং 3) একটি হিস্টোগ্রাম এবং একটি সিগন্যাল লাইন নিয়ে গঠিত। যখন মূল্য এগুলো অতিক্রম করে, সেটি মার্কেটে এন্ট্রির একটি সিগন্যাল। ট্রেন্ড প্যাটার্ন (চ্যানেল এবং ট্রেন্ডলাইন) এর সাথে এই সূচকটি ব্যবহার করার পরামর্শ দেওয়া হয়। গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা এবং অর্থনৈতিক প্রতিবেদন অর্থনৈতিক ক্যালেন্ডারে পাওয়া যেতে পারে এবং এগুলো একটি কারেন্সি পেয়ারের মূল্যের মুভমেন্টকে মারাত্মকভাবে প্রভাবিত করতে পারে। অতএব, সেগুলোর প্রকাশের সময়, আমরা মূল্যের তীব্র ওঠানামা এড়াতে যতটা সম্ভব সাবধানে ট্রেড করার বা বাজার থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিই। ফরেক্সে নতুন ট্রেডারদের মনে রাখা উচিত যে প্রতিটি ট্রেড লাভজনক হতে হবে না। একটি সুস্পষ্ট কৌশল এবং অর্থ ব্যবস্থাপনার বিকাশ হল দীর্ঘ মেয়াদে ট্রেডিংয়ে সাফল্যের চাবিকাঠি। https://ifxpr.com/4baNkxJ









InstaForexSushantay

Team Member

Total Post: 3072
From
Registered: 2014-11-17
 

EUR/USD পেয়ারের পূর্বাভাস, ২৪ জুন। ইউরোর মূল্য নিম্নমুখী হচ্ছে EUR/USD পেয়ারের 5M চার্টের বিশ্লেষণ শুক্রবার এই পেয়ারের মূল্য 1.0757 লেভেলে থাকা অবস্থায় ট্রেডিং সেশন শেষ হওয়ার পর EUR/USD পেয়ারের মূল্যের নিম্নগামী মুভমেন্ট অব্যাহত রয়েছে। ফলস্বরূপ, সপ্তাহের শেষের দিকে মূল্য 1.0658-1.0669 এর সাপোর্ট এরিয়ার কাছাকাছি থাকা অবস্থায় ট্রেডিং শেষ হয়েছে। এই পেয়ারের মূল্য এই এরিয়ায় দ্বিতীয়বারের মতো বাউন্স করতে পারে, কিন্তু এখন এই পেয়ারের একটি ডিসেন্ডিং ট্রেন্ড লাইন রয়েছে যা ইউরোর আরও দরপতনের সম্ভাবনাকে সমর্থন করে। প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণ এই পেয়ারের মূল্যের শুধুমাত্র নিম্নগামী মুভমেন্টের সম্ভাবনা সমর্থন করে না। মৌলিক পটভূমি থেকে ইউরোর মূল্যের শক্তিশালী বৃদ্ধির ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে না। গত দুই সপ্তাহে, এই পেয়ারের মৌলিক পটভূমি উল্লেখযোগ্যভাবে নেতিবাচক ছিল। ইউরোপীয় সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক মূল সুদের হার কমানো শুরু করেছে এবং দ্রুত না হলেও তারা স্থিতিশীলভাবে সুদের হারের হ্রাসকরণ চলমান রাখতে পারে। ফেডারেল রিজার্ভের ক্ষেত্রে, প্রথম কবে সুদের হার কমানো হবে সে বিষয়টি উন্মুক্ত প্রশ্ন রয়ে গেছে। মার্কেটের ট্রেডারদের মধ্যে এই বিষয়ে অনেক আশাবাদে রয়েছে এবং তারা সেপ্টেম্বরে প্রথমবারের মতো ফেডের সুদের হার কমানোর আশা করছে। আমরা মনে করি ফেড ডিসেম্বরে সুদের হার কমাবে। যদি আমরা সঠিক হই, তাহলে বর্তমান নিম্নমুখী প্রবণতায় সমস্ত লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য ইউরোর এখনও যথেষ্ট সময় আছে। শুক্রবার আমরা এই পেয়ারের যেরকম দরপতন দেখেছি তার চেয়ে এটি বেশি তাৎপর্যপূর্ণ হতে পারে। ইউরোপীয় পিএমআই প্রতিবেদনের ফলাফল নিম্নমুখী না হলেও এটি পূর্বাভাসের চেয়ে দুর্বল ছিল। অন্যদিকে, মার্কিন সামষ্টিক সূচকসমূহের ফলাফল প্রত্যাশার চেয়ে বেশি শক্তিশালী বলে প্রমাণিত হয়েছে। তাই মার্কিন ট্রেডিং সেশনে ডলারের দাম বাড়তে পারে। যাইহোক, মার্কেটের ট্রেডাররা মনে করে যে ডলারের জন্য মাত্র 10 পিপস বৃদ্ধি পাওয়াই যথেষ্ট। সামগ্রিকভাবে, এই পেয়ারের মূল্যের অস্থিরতার মাত্রা খুব দুর্বল রয়েছে। শুক্রবারের ট্রেডিং সিগন্যালের কথা বলতে গেলে, আমরা কেবলমাত্র ক্রিটিক্যাল লাইন থেকে এই পেয়ারের মূল্যের বাউন্সের কথা উল্লেখ করতে পারি, যার পরে মূল্য প্রায় 1.0658-1.0669 এরিয়াতে পৌঁছেছে, মাত্র কয়েকটি পিপস হ্রাস পেয়েছে। দুর্ভাগ্যবশত, দিনের শেষে এই পেয়ারের মূল্য বেড়েছে, তাই ট্রেডাররা একটি শর্ট পজিশন থেকে সর্বোচ্চ 15 পিপস উপার্জন করতে পারে। দিনের বেলায় অন্য কোন সিগন্যাল গঠিত হয়নি। COT রিপোর্ট: এই পেয়ারের সর্বশেষ COT রিপোর্ট ১১ জুনে প্রকাশিত হয়েছে। নন-কমার্শিয়াল ট্রেডারদের নেট পজিশন দীর্ঘদিন ধরেই বুলিশ রয়েছে এবং আমরা আবারও একই পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছি। মার্কেটে এই পেয়ারের বিক্রেতাদের আধিপত্য অর্জনের প্রচেষ্টা শোচনীয়ভাবে ব্যর্থ হয়েছিল। সাম্প্রতিক মাসগুলিতে নন-কমার্শিয়াল ট্রেডারদের নেট পজিশন (লাল লাইন) হ্রাস পাচ্ছে, অন্যদিকে কমার্শিয়াল ট্রেডারদের নেট পজিশন (নীল লাইন) বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিন্তু এখন আমরা আবার উল্টোটা দেখছি। এটি এই ইঙ্গিত দেয় যে এই পেয়ারের বিক্রেতা নয় বরং বিক্রেতারা বর্তমানে আবার মোমেন্টাম পাচ্ছে। এটি অস্থায়ী হতে পারে যেহেতু এখনও এই পেয়ারের মূল্যের নিম্নমুখী প্রবণতার সম্ভাবনা রয়েছে। দীর্ঘমেয়াদে ইউরোর মূল্যের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতাকে সমর্থন দিতে পারে এমন কোনো মৌলিক কারণ আমরা দেখতে পাচ্ছি না, যখন প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণও এই পেয়ারের মূল্যের নিম্নমুখী প্রবণতা অব্যাহত থাকার ইঙ্গিত দেয়। সাপ্তাহিক চার্টে তিনটি ডিসেন্ডিং ট্রেন্ডলাইন নির্দেশ করে যে আরও দরপতনের একটি ভাল সম্ভাবনা রয়েছে। লাল এবং নীল লাইনগুলো বর্তমানে আবার একে অপরের থেকে দূরে সরে যাচ্ছে, যা ইউরোর লং পজিশনে বৃদ্ধি নির্দেশ করে। গত সপ্তাহের রিপোর্ট অনুযায়ী, নন-কমার্শিয়াল গ্রুপের লং পজিশনের সংখ্যা 1,200 কমেছে, যেখানে শর্ট পজিশনের সংখ্যা 23,000 বেড়েছে। তদনুসারে, নেট পজিশনের সংখ্যা 14,200 কমেছে। আমরা ক্রমবর্ধমান বিয়ারিশ চাপ দেখতে পেতে পারি। সিওটি রিপোর্ট অনুযায়ী, ইউরোর দরপতনের ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে। ​​​​​​​ EUR/USD পেয়ারের 1H চার্টের বিশ্লেষণ 1-ঘণ্টার চার্টে, অবশেষে EUR/USD পেয়ারের মূল্যের নতুন নিম্নমুখী প্রবণতা তৈরি হতে শুরু করেছে, যা বৈশ্বিক প্রবণতার অংশ। আগের মতোই, আমরা ইউরোর দরপতনের আশা করছি। এই পেয়ারের মূল্যের অস্থিরতার মাত্রা আবারও ব্যাপকভাবে নিম্ন স্তরে নেমে গেছে, যা বিশ্লেষণ এবং ট্রেডিং পরিচালনা করা বেশ কঠিন করে তুলেছে। এই সপ্তাহে, 1.0658-1.0669 এর এরিয়া থেকে এই পেয়ারের মূল্যের ঊর্ধ্বমুখী কারেকশন আবার শুরু হতে পারে, কিন্তু এই মুহূর্তে, বিক্রেতারা একটি লাইন থেকে সমর্থন পাচ্ছে - ট্রেন্ড লাইন। তাই, একটি নতুন বিয়ারিশ ওয়েভ শুরু করতে, মূল্যকে অবশ্যই 1.0658-1.0669 এর এরিয়ার নিচে কনসলিডেট হতে হবে। 24 জুন, আমরা ট্রেড করার জন্য নিম্নলিখিত লেভেলগুলোকে গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছি: 1.0530, 1.0581, 1.0658-1.0669, 1.0757, 1.0797, 1.0836, 1.0889, 1.0935, 1.1006, 1.1092, সেইসাথে সেনকৌ স্প্যান বি লাইন (1.0785) এবং কিজুন-সেন লাইন (1.0717) রয়েছে। ইচিমোকু সূচক লাইনগুলো দিনের বেলা অবস্থান পরিবর্তন করতে পারে, তাই ট্রেডিং সিগন্যাল সনাক্ত করার সময় এটি বিবেচনা করা উচিত। যদি মূল্য 15 পিপস দ্বারা নির্ধারিত দিকে চলে যায় তবে ব্রেকইভেনে স্টপ লস সেট করতে ভুলবেন না। যদি সিগন্যালটি ভুল বলে প্রমাণিত হয় তবে এটি আপনাকে সম্ভাব্য লোকসানের বিরুদ্ধে সুরক্ষা প্রদান করবে। সোমবারের জন্য নির্ধারিত কোন উল্লেখযোগ্য ইভেন্ট নেই। সকালে, জার্মানিতে IFO বিজনেস ক্লাইমেট রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে, তবে এই প্রতিবেদনটি গুরুত্বের দিক থেকে গৌণ। এই প্রতিবেদনের প্রভাবে মার্কেটে সর্বাধিক 10-15 পিপসের প্রতিক্রিয়া দেখা যেতে পারে। অন্যথায়, আমাদের আরেকটি "বিরক্তিকর সোমবার" এবং অস্থিরতাবিহীন সপ্তাহ দেখতে পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। চার্টের সূচকসমূহের বর্ণনা: মূল্যের সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লেভেলগুলো হচ্ছে গাঢ় লাল লাইন, যার কাছাকাছি মুভমেন্ট শেষ হতে পারে। এগুলো ট্রেডিং সংকেত প্রদান করে না। কিজুন-সেন এবং সেনকৌ স্প্যান বি লাইন হল ইচিমোকু সূচকের লাইন, যা 4-ঘন্টা থেকে এক ঘন্টার চার্টে সরানো হয়েছে। এগুলো শক্তিশালী লাইন। এক্সট্রিম লেভেল হল হালকা লাল লাইন যেখান থেকে মূল্য আগে বাউন্স করেছে। এগুলো ট্রেডিং সিগন্যাল প্রদান করে। হলুদ লাইন হল ট্রেন্ড লাইন, ট্রেন্ড চ্যানেল এবং অন্য কোন প্রযুক্তিগত নিদর্শন। COT চার্টে সূচক 1 প্রতিটি শ্রেণীর ট্রেডারদের নেট পজিশনের আকার প্রতিফলিত করে। COT চার্টে সূচক 2 নন কমার্শিয়াল গ্রুপের নেট পজিশনের আকার প্রতিফলিত করে। https://ifxpr.com/3xuYYpz









InstaForexSushantay

Team Member

Total Post: 3072
From
Registered: 2014-11-17
 

EUR/USD পেয়ারের ট্রেডিংয়ের পরিকল্পনা, ২৫ জুন সোমবারের ট্রেডের বিশ্লেষণ: EUR/USD পেয়ারের 1H চার্ট EUR/USD পেয়ারের মূল্যের নতুন কারেকটিভ ফেজ শুরু হয়েছে এবং ডিসেন্ডিং চ্যানেলের উপরে কনসলিডেট হয়েছে। বাস্তবে, এটি এই পেয়ারের মূল্যের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় স্থানান্তরের নিশ্চয়তা দেয় না। এর অর্থ হল কারেকশন, যা 1.0678 এর লেভেল থেকে শুরু হয়েছিল, দীর্ঘায়িত হতে পারে। অতএব, নতুন ট্রেডাররা এই সপ্তাহে এই পেয়ারের মূল্য 1.0804 এর লেভেলে চলে যাওয়ার আশা করতে পারে। এই পেয়ারের মূল্যের নিম্নমুখী প্রবণতা অটুট রয়েছে। ইউরোজোন বা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কোনো উল্লেখযোগ্য প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়নি বা কোন ইভেন্ট ছিল না। আমরা শুধুমাত্র জার্মানিতে প্রকাশিত IFO বিজনেস ক্লাইমেট ইনডেক্সের কথা উল্লেখ করতে পারি, যার ফলাফল পূর্বাভাসের চেয়ে কম ছিল, কিন্তু ইউরোপীয় ট্রেডিং সেশনে ইউরো এখনও ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা সাথে ট্রেড করেছে। অতএব, আমরা এই উপসংহারে আসতে পারি যে মার্কেটের ট্রেডাররা এই প্রতিবেদনটিকে সম্পূর্ণরূপে উপেক্ষা করেছে, যেমনটি আমরা প্রত্যাশা করেছিলাম। চলতি সপ্তাহ জুড়ে খুব কমই কোনো গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্ট অনুষ্ঠিত ও প্রতিবেদন প্রকাশের কথা রয়েছে। ইউরোর মূল্যের ঊর্ধ্বমুখী কারেকশন হতে পারে, এবং এই পেয়ারের মূল্যের অস্থিরতা সম্ভবত কম থাকবে। ​​​​​​​ EUR/USD পেয়ারের 5M চার্ট 5 মিনিটের টাইমফ্রেমে দুটি ট্রেডিং সিগন্যাল গঠিত হয়েছিল। আপনাকে মনে করিয়ে দিতে চাই যে শুক্রবার মূল্য 1.0678 এর লেভেল থেকে চারবার বাউন্স করেছে। যেহেতু এই পেয়ারের মূল্যের অস্থিরতার মাত্রা বর্তমানে বেশ কম, তাই দৈনিক এবং এমনকি সাপ্তাহিক ভিত্তিতেও ট্রেড করার বিষয়টি বিবেচনা করা যেতে পারে। সমস্যা হল যে 10-12 ঘন্টার মধ্যে মূল্য এমনকি নিকটতম লক্ষ্যমাত্রায়ও পৌঁছাতে পারেনি। নতুন ট্রেডাররা যদি শুক্রবারে লং পজিশন ওপেন করে থাকে, তাহলে তারা আজ 1.0726-1.0733 এর এরিয়ায় টেক প্রফিট সেট করতে পারত। অধিকন্তু, মূল্য এই এরিয়া অতিক্রম করেছে, তাই 1.0797 এর লক্ষ্যমাত্রায় লং পজিশন প্রাসঙ্গিক রয়ে গেছে। মঙ্গলবারের ট্রেডিংয়ের পরামর্শ: এক ঘন্টার চার্টে, অবশেষে স্থানীয়ভাবে EUR/USD পেয়ারের মূল্যের নিম্নগামী প্রবণতা তৈরি হতে শুরু করেছে। আমরা এখনও আশা করি পেয়ারটির মূল্য 1.0600, 1.0450, এবং এমনকি 1.0200-এর লেভেলে নেমে যাবে। যাইহোক, এটা জানা গুরুত্বপূর্ণ যে এই পেয়ারের মূল্য মাত্র কয়েক সপ্তাহের মধ্যে এই লক্ষ্যমাত্রাগুলোতে পৌঁছাবে না; মূল্য মধ্যমেয়াদে এই লেভেলগুলোতে পৌঁছাতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, এই পেয়ারের মূল্য আরও এক সপ্তাহের জন্য কারেকটিভ ফেজের মধ্য দিয়ে যেতে পারে, কারণ বেশ কয়েকটি প্রচেষ্টার পরেও এই পেয়ারের মূল্য 1.0678 এর লেভেল অতিক্রম করেনি। আমরা মধ্যমেয়াদে ইউরোর মূল্য বাড়ার কোনো কারণ দেখি না। মঙ্গলবার, এই পেয়ারের মূল্য 1.0726-1.0733 এরিয়া অতিক্রম করার পর থেকে ট্রেডাররা একটি নতুন ঊর্ধ্বমুখী মুভমেন্টের আশা করতে পারে। যাইহোক, এটা মনে রাখা গুরুত্বপূর্ণ যে আবারও এই পেয়ারের মূল্য উল্লেখযোগ্যভাবে স্বল্প মাত্রার অস্থিরতার মধ্য দিয়ে যেতে পারে, যার অর্থ এই যে এই পেয়ারের মূল্যের অনিয়মিত মুভমেন্ট দেখা যেতে পারে। 5M চার্টের মূল লেভেলগুলো হল 1.0483, 1.0526, 1.0568, 1.0611, 1.0678, 1.0726-1.0733, 1.0797-1.0804, 1.0838-1.0856, 1.0888-1.0896, 1.0940, 1.0971-1.0981। আজ, ইউরো জোনের অর্থনৈতিক ক্যালেন্ডারে তেমন কিছু নেউ। সারাদিনে লক্ষণীয় কিছু নেই। ট্রেডিংয়ের মূল নিয়মাবলী: 1) সিগন্যাল গঠন করতে কতক্ষণ সময় নেয় তার উপর ভিত্তি করে সিগন্যালের শক্তি নির্ধারণ করা হয় (রিবাউন্ড বা লেভেলের ব্রেকআউট)। যত দ্রুত এটি গঠিত হয়, সিগন্যাল তত শক্তিশালী হয়। 2) যদি ফলস সিগন্যালের উপর ভিত্তি করে নির্দিষ্ট লেভেলের কাছাকাছি দুটি বা ততোধিক পজিশন খোলা হয় (যা টেক প্রফিট শুরু করেনি বা নিকটতম লক্ষ্যমাত্রায় পৌছায়নি), তাহলে এই লেভেলে প্রাপ্ত পরবর্তী সমস্ত সিগন্যাল উপেক্ষা করা উচিত। 3) ফ্ল্যাট মার্কেটের সময়, যেকোন পেয়ারের একাধিক ফলস সিগন্যাল তৈরি হতে পারে বা কোন সিগন্যালের গঠন নাও হতে পারে। যাই হোক না কেন, ফ্ল্যাট মুভমেন্টের ইঙ্গিত পাওয়া মাত্র ট্রেডিং বন্ধ করাই ভালো। 4) ইউরোপীয় সেশনের শুরু থেকে মার্কিন ট্রেডিং সেশনের মাঝামাঝি সময়ে ট্রেডগুলো খোলা উচিত যখন সমস্ত পজিশন ম্যানুয়ালি ক্লোজ করতে হবে। 5) আপনি 30-মিনিটের টাইম ফ্রেমে MACD সূচক থেকে সিগন্যাল ব্যবহার করে ট্রেড করতে পারেন, তবে এটি শুধুমাত্র শক্তিশালী অস্থিরতার মধ্যে ব্যবহার করা উচিত এবং একটি স্পষ্ট প্রবণতা থাকতে হবে যা ট্রেন্ডলাইন বা ট্রেন্ড চ্যানেল দ্বারা নিশ্চিত হওয়া উচিত। 6) যদি দুটি লেভেল একে অপরের খুব কাছাকাছি অবস্থিত হয় (5 থেকে 15 পিপস পর্যন্ত), সেগুলোকে সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লেভেল হিসাবে বিবেচনা করা উচিত। চার্ট কীভাবে বুঝতে হয়: সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লেভেলগুলো হল সেই লেভেল যা কারেন্সি পেয়ার কেনা বা বিক্রি করার সময় লক্ষ্যমাত্রা হিসাবে কাজ করে। আপনি এই লেভেলগুলোর কাছাকাছি টেক প্রফিট সেট করতে পারেন। লাল লাইন হল চ্যানেল বা ট্রেন্ড লাইন যা বর্তমান প্রবণতা প্রদর্শন করে এবং দেখায় যে এখন কোন দিকে ট্রেড করা ভাল হবে। MACD নির্দেশক (14, 22, এবং 3) একটি হিস্টোগ্রাম এবং একটি সিগন্যাল লাইন নিয়ে গঠিত। যখন মূল্য এগুলো অতিক্রম করে, সেটি মার্কেটে এন্ট্রির একটি সিগন্যাল। ট্রেন্ড প্যাটার্ন (চ্যানেল এবং ট্রেন্ডলাইন) এর সাথে এই সূচকটি ব্যবহার করার পরামর্শ দেওয়া হয়। গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা এবং অর্থনৈতিক প্রতিবেদন অর্থনৈতিক ক্যালেন্ডারে পাওয়া যেতে পারে এবং এগুলো একটি কারেন্সি পেয়ারের মূল্যের মুভমেন্টকে মারাত্মকভাবে প্রভাবিত করতে পারে। অতএব, সেগুলোর প্রকাশের সময়, আমরা মূল্যের তীব্র ওঠানামা এড়াতে যতটা সম্ভব সাবধানে ট্রেড করার বা বাজার থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিই। ফরেক্সে নতুন ট্রেডারদের মনে রাখা উচিত যে প্রতিটি ট্রেড লাভজনক হতে হবে না। একটি সুস্পষ্ট কৌশল এবং অর্থ ব্যবস্থাপনার বিকাশ হল দীর্ঘ মেয়াদে ট্রেডিংয়ে সাফল্যের চাবিকাঠি। https://ifxpr.com/4bhjbwX









InstaForexSushantay

Team Member

Total Post: 3072
From
Registered: 2014-11-17
 

EUR/USD: ইউরোপীয় সেশনে নতুন ট্রেডারদের জন্য ট্রেডিংয়ের পরামর্শ, ২৬ জুন  EUR/USD পেয়ারের ট্রেডিংয়ের পর্যালোচনা ও পরামর্শ যখন MACD সূচকটি উল্লেখযোগ্যভাবে শূন্যের নিচে নেমে গিয়েছিল তখন এই পেয়ারের মূল্য 1.0705-এর লেভেল টেস্ট করেছে, যা EUR/USD পেয়ারের মূল্যের নিম্নগামী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করেছিল। এই কারণে, অর্থনীতিবিদদের পূর্বাভাসের চেয়ে মার্কিন সামষ্টিক প্রতিবেদনের ফলাফল ইতিবাচক হলেও আমি ইউরো বিক্রি করিনি। মূল্য়ের টেস্ট আবারও হয়েছিল যখন MACD ওভারসোল্ড জোনে ছিল। অতএব, এই পেয়ার কেনার দ্বিতীয় পরিস্থিতি বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়েছিল। যাইহোক, আপনি চার্টে দেখতে পাচ্ছেন, এই পেয়ারের মূল্য সক্রিয়ভাবে বৃদ্ধি পায়নি। গতকাল, স্পেনের জিডিপি প্রতিবেদন ইউরোর উপর প্রভাব ফেলেনি, নাগেলের বক্তৃতাও ছিল না। আজ, একই পরিস্থিতি আবার দেখা যেতে পারে, কারণ জার্মানির প্রতিবেদনের দুর্বল ফলাফল ইতোমধ্যেই EUR/USD-এর উপর চাপ সৃষ্টি করেছে, এবং এখন সার্বিক পরিস্থিতি ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্বাহী বোর্ডের সদস্য ফিলিপ লেনের বক্তৃতার সময় ইতিবাচক প্রতিক্রিয়ার উপর নির্ভর করে। দৈনিক নিম্ন লেভেলের সুরক্ষিত রাখা হলে সেটি এই পেয়ারের ক্রেতাদের মূল্যের নিম্নমুখী প্রবণতা বিপরীতমুখী করার সুযোগ দেবে। দৈনিক কৌশল হিসাবে, আমি পরিস্থিতি নং 1 এবং 2 বাস্তবায়নের উপর বেশি নির্ভর করব। বাই সিগন্যাল পরিস্থিতি নং 1. আজ যখন মূল্য 1.0731 লেভেলে বৃদ্ধির লক্ষ্যে 1.0708 এর (চার্টে সবুজ লাইন দ্বারা চিহ্নিত) লেভেলে পৌঁছাবে, তখন আপনি ইউরো কিনতে পারেন। মূল্য 1.0731-এর লেভেলে গেলে, আমি মার্কেট থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছি এবং এন্ট্রি পয়েন্ট থেকে 30-35 পিপসের মুভমেন্টের উপর নির্ভর করে বিপরীত দিকে ইউরো বিক্রি করব। যদি ক্রেতারা গতকালের সর্বনিম্ন লেভেলের কাছাকাছি সক্রিয় থাকে তবে আপনি আজ ইউরোর দর বৃদ্ধির উপর নির্ভর করতে পারেন। কেনার আগে, নিশ্চিত করুন যে MACD সূচকটি শূন্যের উপরে রয়েছে এবং শূন্যের উপরে উঠতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নং 2. MACD সূচকটি ওভারসোল্ড জোনে থাকাকালীন সময়ে 1.0685 এর লেভেলে মূল্যের পরপর দুটি টেস্টের ক্ষেত্রেও আমি আজ ইউরো কিনতে যাচ্ছি। এটি এই ইন্সট্রুমেন্টের মূল্যের নিম্নগামী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করবে এবং বাজারদরকে বিপরীতমুখী করে ঊর্ধ্বমুখী করবে। আমরা 1.0708 এবং 1.0731 এর বিপরীতমুখী লেভেলে এই পেয়ারের দর বৃদ্ধির আশা করতে পারি। সেল সিগন্যাল পরিস্থিতি নং 1. EUR/USD পেয়ারের মূল্য চার্টে লাল লাইন দ্বারা চিহ্নিত 1.0685 লেভেলে পৌঁছানোর পরে আমি ইউরো বিক্রি করার পরিকল্পনা করছি। লক্ষ্যমাত্রা হবে 1.0664 এর লেভেল, যেখানে আমি মার্কেট থেকে বের হয়ে অবিলম্বে বিপরীত দিকে ইউরো কিনতে যাচ্ছি (এই লেভেল থেকে 20-25 পিপস ঊর্ধ্বমুখী মুভমেন্টের আশা করছি)। এই পেয়ারের মূল্য দৈনিক সর্বোচ্চ লেভেলের কাছাকাছি কনসলিডেট করতে ব্যর্থ হলে এবং ইসিবির কর্মকর্তারা নমনীয় অবস্থান গ্রহণ করলে EUR/USD-এর উপর চাপ বাড়বে। বিক্রি করার আগে, নিশ্চিত করুন যে MACD সূচকটি শূন্যের নিচে রয়েছে এবং এটি থেকে নিচে নামতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নং 2. MACD সূচকটি ওভারবট জোনে থাকাকালীন সময়ে 1.0708 এর লেভেলে মূল্যের পরপর দুটি টেস্টের ক্ষেত্রেও আমি আজ ইউরো বিক্রি করতে যাচ্ছি। এটি এই পেয়ারের মূল্যের ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করবে এবং বাজারদরকে বিপরীতমুখী করে নিম্নমুখী করবে। আমরা 1.0685 এবং 1.0664 এর বিপরীতমুখী লেভেলে এই পেয়ারের দরপতনের আশা করতে পারি। চার্টে কী আছে: হালকা সবুজ লাইন - এন্ট্রি প্রাইস যেখানে আপনি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট কিনতে পারবেন গাঢ় সবুজ লাইন - আনুমানিক মূল্য যেখানে আপনি টেক-প্রফিট (TP) সেট করতে পারেন বা ম্যানুয়ালি মুনাফা নির্ধারণ করতে পারেন, কারণ এই লেভেলের উপরে আরও দর বৃদ্ধির সম্ভাবনা নেই। হালকা লাল লাইন - এন্ট্রি প্রাইস যেখানে আপনি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট বিক্রি করতে পারবেন গাঢ় লাল লাইন - আনুমানিক মূল্য যেখানে আপনি টেক-প্রফিট (TP) সেট করতে পারেন বা ম্যানুয়ালি মুনাফা নির্ধারণ করতে পারেন, কারণ এই লেভেলের নিচে আরও দরপতনের সম্ভাবনা নেই। MACD লাইন - মার্কেটে এন্ট্রি করার সময়, ওভারবট এবং ওভারসোল্ড জোন দ্বারা পরিচালিত হওয়া গুরুত্বপূর্ণ। গুরুত্বপূর্ণ: নতুন ট্রেডারদের মার্কেটে এন্ট্রির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় খুব সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেদন প্রকাশের আগে, মূল্যের তীব্র ওঠানামা এড়াতে মার্কেটের বাইরে থাকাই ভাল। আপনি যদি সংবাদ প্রকাশের সময় ট্রেড করার সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে ক্ষতি কমাতে সর্বদা স্টপ অর্ডার দিন। স্টপ অর্ডার না দিয়ে, আপনি খুব দ্রুত আপনার সম্পূর্ণ ডিপোজিট হারাতে পারেন, বিশেষ করে যদি আপনি মানি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ব্যবহার না করেন এবং বড় ভলিউমে ট্রেড করেন। এবং মনে রাখবেন সফলভাবে ট্রেড করার জন্য আপনার ট্রেডিংয়ের একটি স্পষ্ট পরিকল্পনা থাকতে হবে। বর্তমান বাজার পরিস্থিতির উপর ভিত্তি করে ট্রেডিংয়ের স্বতঃস্ফূর্ত সিদ্ধান্ত একজন দৈনিক ট্রেডারের জন্য সহজাতভাবে ক্ষতির কারণ হতে পারে। https://ifxpr.com/3XHqXwS









InstaForexSushantay

Team Member

Total Post: 3072
From
Registered: 2014-11-17
 

EUR/USD: ইউরোপীয় সেশনে নতুন ট্রেডারদের জন্য ট্রেডিংয়ের পরামর্শ, ২৭ জুন EUR/USD পেয়ারের ট্রেডিংয়ের পর্যালোচনা ও পরামর্শ যখন MACD সূচকটি শূন্যের উল্লেখযোগ্য নীচে চলে গিয়েছিল তখন এই পেয়ারের মূল্য 1.0680-এর লেভেল টেস্ট করেছে, যা EUR/USD পেয়ারের মূল্যের নিম্নগামী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করেছিল। এই কারণে, আমি ইউরো বিক্রি করিনি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে নতুন আবাসন বিক্রির দুর্বল ফলাফল এই পেয়ারের মূল্যের দিকনির্দেশ নির্ধারণে সাহায্য করেছে, কিন্তু EUR/USD পেয়ারের মূল্য সক্রিয়ভাবে বৃদ্ধি পায়নি। এটি এই ইঙ্গিত দেয় যে ইউরো চাপের মধ্যে থাকবে এবং আজকে ইউরোজোনে প্রকাশিতব্য সামষ্টিক প্রতিবেদনের দুর্বল ফলাফল এই পেয়ার বিক্রির পরবর্তী কারণ হতে পারে। প্রথমত, ইউরোজোনে M3 মানি সাপ্লাই, বেসরকারী খাতে ঋণ প্রদান এবং ভোক্তা আস্থার সূচকের প্রতিবেদন বিনিয়োগকারীদের মনোযোগ আকর্ষণ করতে পারে। এই প্রতিবেদনগুলোর দুর্বল ফলাফল EUR/USD-এর উপর চাপ সৃষ্টি করবে, সেইসাথে ইউরোপীয় সেন্ট্রাল ব্যাঙ্কের কর্মকর্তা ফ্রাঙ্ক এল্ডারসনের নমনীয় অবস্থান, যিনি এই বছর সুদের হার আরও কমানোর ব্যাপারে তার সহকর্মীদের সমর্থন করছেন। দৈনিক কৌশল হিসাবে, আমি পরিস্থিতি নং 1 এবং 2 বাস্তবায়নের উপর বেশি নির্ভর করব। বাই সিগন্যাল পরিস্থিতি নং 1. আজ যখন মূল্য 1.0727 লেভেলে বৃদ্ধির লক্ষ্যে 1.0705 এর (চার্টে সবুজ লাইন দ্বারা চিহ্নিত) লেভেলে পৌঁছাবে, তখন আপনি ইউরো কিনতে পারেন। মূল্য 1.0727-এর লেভেলে গেলে, আমি মার্কেট থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছি এবং এন্ট্রি পয়েন্ট থেকে 30-35 পিপসের মুভমেন্টের উপর নির্ভর করে বিপরীত দিকে ইউরো বিক্রি করব। যদি ক্রেতারা আজকের সর্বোচ্চ লেভেলের কাছাকাছি সক্রিয় থাকে এবং ইউরোজোনের সামষ্টিক প্রতিবেদনের শক্তিশালী ফলাফল প্রকাশিত হয় তবে আপনি আজ ইউরোর দর বৃদ্ধির উপর নির্ভর করতে পারেন। কেনার আগে, নিশ্চিত করুন যে MACD সূচকটি শূন্যের উপরে রয়েছে এবং শূন্যের উপরে উঠতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নং 2. MACD সূচকটি ওভারসোল্ড জোনে থাকাকালীন সময়ে 1.0688 এর লেভেলে মূল্যের পরপর দুটি টেস্টের ক্ষেত্রেও আমি আজ ইউরো কিনতে যাচ্ছি। এটি এই ইন্সট্রুমেন্টের মূল্যের নিম্নগামী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করবে এবং বাজারদরকে বিপরীতমুখী করে ঊর্ধ্বমুখী করবে। আমরা 1.0705 এবং 1.0727 এর বিপরীতমুখী লেভেলে এই পেয়ারের দর বৃদ্ধির আশা করতে পারি। সেল সিগন্যাল পরিস্থিতি নং 1. EUR/USD পেয়ারের মূল্য চার্টে লাল লাইন দ্বারা চিহ্নিত 1.0688 লেভেলে পৌঁছানোর পরে আমি ইউরো বিক্রি করার পরিকল্পনা করছি। লক্ষ্যমাত্রা হবে 1.0665 এর লেভেল, যেখানে আমি মার্কেট থেকে বের হয়ে অবিলম্বে বিপরীত দিকে ইউরো কিনতে যাচ্ছি (এই লেভেল থেকে 20-25 পিপস ঊর্ধ্বমুখী মুভমেন্টের আশা করছি)। এই পেয়ারের মূল্য দৈনিক সর্বোচ্চ লেভেলের কাছাকাছি কনসলিডেট করতে ব্যর্থ হলে এবং ইসিবির কর্মকর্তারা নমনীয় অবস্থান গ্রহণ করলে EUR/USD-এর উপর চাপ বাড়বে। বিক্রি করার আগে, নিশ্চিত করুন যে MACD সূচকটি শূন্যের নিচে রয়েছে এবং এটি থেকে নিচে নামতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নং 2. MACD সূচকটি ওভারবট জোনে থাকাকালীন সময়ে 1.0705 এর লেভেলে মূল্যের পরপর দুটি টেস্টের ক্ষেত্রেও আমি আজ ইউরো বিক্রি করতে যাচ্ছি। এটি এই পেয়ারের মূল্যের ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করবে এবং বাজারদরকে বিপরীতমুখী করে নিম্নমুখী করবে। আমরা 1.0688 এবং 1.0665 এর বিপরীতমুখী লেভেলে এই পেয়ারের দরপতনের আশা করতে পারি। চার্টে কী আছে: হালকা সবুজ লাইন - এন্ট্রি প্রাইস যেখানে আপনি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট কিনতে পারবেন গাঢ় সবুজ লাইন - আনুমানিক মূল্য যেখানে আপনি টেক-প্রফিট (TP) সেট করতে পারেন বা ম্যানুয়ালি মুনাফা নির্ধারণ করতে পারেন, কারণ এই লেভেলের উপরে আরও দর বৃদ্ধির সম্ভাবনা নেই। হালকা লাল লাইন - এন্ট্রি প্রাইস যেখানে আপনি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট বিক্রি করতে পারবেন গাঢ় লাল লাইন - আনুমানিক মূল্য যেখানে আপনি টেক-প্রফিট (TP) সেট করতে পারেন বা ম্যানুয়ালি মুনাফা নির্ধারণ করতে পারেন, কারণ এই লেভেলের নিচে আরও দরপতনের সম্ভাবনা নেই। MACD লাইন - মার্কেটে এন্ট্রি করার সময়, ওভারবট এবং ওভারসোল্ড জোন দ্বারা পরিচালিত হওয়া গুরুত্বপূর্ণ। গুরুত্বপূর্ণ: নতুন ট্রেডারদের মার্কেটে এন্ট্রির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় খুব সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেদন প্রকাশের আগে, মূল্যের তীব্র ওঠানামা এড়াতে মার্কেটের বাইরে থাকাই ভাল। আপনি যদি সংবাদ প্রকাশের সময় ট্রেড করার সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে ক্ষতি কমাতে সর্বদা স্টপ অর্ডার দিন। স্টপ অর্ডার না দিয়ে, আপনি খুব দ্রুত আপনার সম্পূর্ণ ডিপোজিট হারাতে পারেন, বিশেষ করে যদি আপনি মানি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ব্যবহার না করেন এবং বড় ভলিউমে ট্রেড করেন। এবং মনে রাখবেন সফলভাবে ট্রেড করার জন্য আপনার ট্রেডিংয়ের একটি স্পষ্ট পরিকল্পনা থাকতে হবে। বর্তমান বাজার পরিস্থিতির উপর ভিত্তি করে ট্রেডিংয়ের স্বতঃস্ফূর্ত সিদ্ধান্ত একজন দৈনিক ট্রেডারের জন্য সহজাতভাবে ক্ষতির কারণ হতে পারে। https://ifxpr.com/3VYdzmU









InstaForexSushantay

Team Member

Total Post: 3072
From
Registered: 2014-11-17
 

EUR/USD: ইউরোপীয় সেশনে নতুন ট্রেডারদের জন্য ট্রেডিংয়ের পরামর্শ, ২ জুলাই EUR/USD পেয়ারের ট্রেডিংয়ের পর্যালোচনা ও পরামর্শ যখন MACD সূচকটি উল্লেখযোগ্যভাবে শূন্যের নীচে চলে গিয়েছিল তখন এই পেয়ারের মূল্য 1.0733-এর লেভেল টেস্ট করেছিল, যা এই পেয়ারের মূল্যের নিম্নগামী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করেছিল। এই কারণে, আমি ইউরো বিক্রি করিনি। গতকাল, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রকাশিত সামষ্টিক প্রতিবেদনের হতাশাজনক ফলাফল পরিলক্ষিত হয়েছে, কিন্তু তারপরও EUR/USD পেয়ারের বুল বা ক্রেতারা মার্কেটের নিয়ন্ত্রণ বজায় রাখতে ব্যর্থ হয়েছে। মনে হচ্ছে আজকে তারা আরেকটি পরীক্ষার মুখোমুখি হবে। ইউরোজোনের কনজিউমার প্রাইস ইনডেক্স বা ভোক্তা মূল্য সূচক ইউরোর উপর উল্লেখযোগ্য চাপ সৃষ্টি করতে পারে যদি এই প্রতিবেদনে দেখা যায় যে মুদ্রাস্ফীতি মন্থর হয়েছে, কারণ এটি ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংককে ডোভিশ বা নমনীয় মুদ্রানীতির দিকে ফিরিয়ে আনবে। ইসিবির প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিন লাগার্ডের বক্তৃতা, এবং ইসিবির নির্বাহী বোর্ডের সদস্য ফ্রাঙ্ক এল্ডারসন এবং ইসাবেল শ্নাবেলও বিনিয়োগকারীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করবে। দৈনিক কৌশল হিসাবে, আমি পরিস্থিতি নং 1 এবং 2 বাস্তবায়নের উপর বেশি নির্ভর করব। বাই সিগন্যাল পরিস্থিতি নং 1. আজ যখন মূল্য 1.0800 লেভেলে বৃদ্ধির লক্ষ্যে 1.0745 এর (চার্টে সবুজ লাইন দ্বারা চিহ্নিত) লেভেলে পৌঁছাবে, তখন আপনি ইউরো কিনতে পারেন। মূল্য 1.0800-এর লেভেলে গেলে, আমি মার্কেট থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছি এবং এন্ট্রি পয়েন্ট থেকে 30-35 পিপসের মুভমেন্টের উপর নির্ভর করে বিপরীত দিকে ইউরো বিক্রি করব। আপনি আজ ইউরোর দর বৃদ্ধির উপর নির্ভর করতে পারেন, তবে শুধুমাত্র যদি ইউরোজোনের মুদ্রাস্ফীতি টানা দ্বিতীয় মাসে ত্বরান্বিত হয়। কেনার আগে, নিশ্চিত করুন যে MACD সূচকটি শূন্যের উপরে রয়েছে এবং শূন্যের উপরে উঠতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নং 2. MACD সূচকটি ওভারসোল্ড জোনে থাকাকালীন সময়ে 1.0721 এর লেভেলে মূল্যের পরপর দুটি টেস্টের ক্ষেত্রেও আমি আজ ইউরো কিনতে যাচ্ছি। এটি এই ইন্সট্রুমেন্টের মূল্যের নিম্নগামী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করবে এবং বাজারদরকে বিপরীতমুখী করে ঊর্ধ্বমুখী করবে। আমরা 1.0745 এবং 1.0800 এর বিপরীতমুখী লেভেলে এই পেয়ারের দর বৃদ্ধির আশা করতে পারি। সেল সিগন্যাল পরিস্থিতি নং 1. EUR/USD পেয়ারের মূল্য চার্টে লাল লাইন দ্বারা চিহ্নিত 1.0721 লেভেলে পৌঁছানোর পরে আমি ইউরো বিক্রি করার পরিকল্পনা করছি। লক্ষ্যমাত্রা হবে 1.0672 এর লেভেল, যেখানে আমি মার্কেট থেকে বের হয়ে অবিলম্বে বিপরীত দিকে ইউরো কিনতে যাচ্ছি (এই লেভেল থেকে 20-25 পিপস ঊর্ধ্বমুখী মুভমেন্টের আশা করছি)। ইউরোজোনের মুদ্রাস্ফীতি কমে গেলে EUR/USD-এর উপর চাপ বাড়বে। বিক্রি করার আগে, নিশ্চিত করুন যে MACD সূচকটি শূন্যের নিচে রয়েছে এবং এটি থেকে নিচে নামতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নং 2. MACD সূচকটি ওভারবট জোনে থাকাকালীন সময়ে 1.0745-এর লেভেলে মূল্যের পরপর দুটি টেস্টের ক্ষেত্রেও আমি আজ ইউরো বিক্রি করতে যাচ্ছি। এটি এই পেয়ারের মূল্যের ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করবে এবং বাজারদরকে বিপরীতমুখী করে নিম্নমুখী করবে। আমরা 1.0721 এবং 1.0672 এর বিপরীতমুখী লেভেলে এই পেয়ারের দরপতনের আশা করতে পারি। চার্টে কী আছে: হালকা সবুজ লাইন - এন্ট্রি প্রাইস যেখানে আপনি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট কিনতে পারবেন গাঢ় সবুজ লাইন - আনুমানিক মূল্য যেখানে আপনি টেক-প্রফিট (TP) সেট করতে পারেন বা ম্যানুয়ালি মুনাফা নির্ধারণ করতে পারেন, কারণ এই লেভেলের উপরে আরও দর বৃদ্ধির সম্ভাবনা নেই। হালকা লাল লাইন - এন্ট্রি প্রাইস যেখানে আপনি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট বিক্রি করতে পারবেন গাঢ় লাল লাইন - আনুমানিক মূল্য যেখানে আপনি টেক-প্রফিট (TP) সেট করতে পারেন বা ম্যানুয়ালি মুনাফা নির্ধারণ করতে পারেন, কারণ এই লেভেলের নিচে আরও দরপতনের সম্ভাবনা নেই। MACD লাইন - মার্কেটে এন্ট্রি করার সময়, ওভারবট এবং ওভারসোল্ড জোন দ্বারা পরিচালিত হওয়া গুরুত্বপূর্ণ। গুরুত্বপূর্ণ: নতুন ট্রেডারদের মার্কেটে এন্ট্রির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় খুব সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেদন প্রকাশের আগে, মূল্যের তীব্র ওঠানামা এড়াতে মার্কেটের বাইরে থাকাই ভাল। আপনি যদি সংবাদ প্রকাশের সময় ট্রেড করার সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে ক্ষতি কমাতে সর্বদা স্টপ অর্ডার দিন। স্টপ অর্ডার না দিয়ে, আপনি খুব দ্রুত আপনার সম্পূর্ণ ডিপোজিট হারাতে পারেন, বিশেষ করে যদি আপনি মানি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ব্যবহার না করেন এবং বড় ভলিউমে ট্রেড করেন। এবং মনে রাখবেন সফলভাবে ট্রেড করার জন্য আপনার ট্রেডিংয়ের একটি স্পষ্ট পরিকল্পনা থাকতে হবে। বর্তমান বাজার পরিস্থিতির উপর ভিত্তি করে ট্রেডিংয়ের স্বতঃস্ফূর্ত সিদ্ধান্ত একজন দৈনিক ট্রেডারের জন্য সহজাতভাবে ক্ষতির কারণ হতে পারে। Read more:  https://ifxpr.com/4ePlkTm









InstaForexSushantay

Team Member

Total Post: 3072
From
Registered: 2014-11-17
 

ইসিবির সভাপতি ক্রিস্টিন লাগার্ড এবং সংস্থাটির প্রধান অর্থনীতিবিদ গতকাল বলেছেন যে ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ইউরোজোনের মূল সুদের হারের বিষয়ে তার সিদ্ধান্ত প্রকাশ করবে। তাদের অর্থনীতিবিদদের প্যানেলগুলি ভোট দেওয়ার পরে উভয় প্রধান সংবাদ সংস্থা রয়টার্স এবং ব্লুমবার্গের অভিমত, বর্তমান rateণ দেওয়ার হারে ০.০০% এবং আমানতের হার -০.৪০% এর কোনও পরিবর্তন হবে না। https://ifxpr.com/3Ut96qj









InstaForexSushantay

Team Member

Total Post: 3072
From
Registered: 2014-11-17
 

EUR/USD: ইউরোপীয় সেশনে ট্রেডারদের জন্য ট্রেডিংয়ের পরামর্শ, ৩ জুলাই EUR/USD পেয়ারের ট্রেডিংয়ের পর্যালোচনা ও পরামর্শ মার্কিন সেশন চলাকালীন সময়ে আমি যে লেভেলগুলোর কথা উল্লেখ করেছি সেগুলোর কোনও টেস্ট হয়নি। তারপরও ইউরোর চাহিদা ছিল, কিন্তু প্রত্যাশা অনুযায়ী ইউরোর মূল্যের সক্রিয় মুভমেন্ট দেখা যায়নি, তাই EUR/USD পেয়ারের মূল্য লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছাতে পারেনি। গতকাল, ফেডারেল রিজার্ভের চেয়ারম্যান জেরোম পাওয়েল এর বক্তৃতা ঝুঁকিপূর্ণ সম্পদের ক্রেতাদের তাদের সম্ভাব্যতা সম্পূর্ণরূপে উপলব্ধি করতে বাধা দেয়। আজ, পরিস্থিতি পরিবর্তিত হতে পারে, কারণ PMI প্রতিবেদনের ফলাফল EURUSD-এর পক্ষে কাজ করবে বলে আশা করা হচ্ছে। ইউরোজোনের পরিষেবা PMI এবং কম্পোজিট PMI এবং ইউরোজোনের জুনের উৎপাদক মূল্য সূচক দিনের প্রথমার্ধে ইউরোর মূল্যের দিকনির্দেশ নির্ধারণ করবে। ইউরোপীয় সেন্ট্রাল ব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট লুইস ডি গুইন্ডোস এবং তার সহকর্মী, ইসিবির এক্সিকিউটিভ বোর্ডের সদস্য পিয়েরো সিপোলোনের আসন্ন বক্তৃতাগুলো সপ্তাহের শুরুতে অনুষ্ঠিত ইসিবির সভাপতি ক্রিস্টিন লাগার্ডের বক্তব্যের মতো গুরুত্বপূর্ণ হবে না। দৈনিক কৌশল হিসাবে, আমি পরিস্থিতি নং 1 এবং 2 বাস্তবায়নের উপর বেশি নির্ভর করব। বাই সিগন্যাল পরিস্থিতি নং 1. আজ যখন মূল্য 1.0800 লেভেলে বৃদ্ধির লক্ষ্যে 1.0756 এর (চার্টে সবুজ লাইন দ্বারা চিহ্নিত) লেভেলে পৌঁছাবে, তখন আপনি ইউরো কিনতে পারেন। মূল্য 1.0800-এর লেভেলে গেলে, আমি মার্কেট থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছি এবং এন্ট্রি পয়েন্ট থেকে 30-35 পিপসের মুভমেন্টের উপর নির্ভর করে বিপরীত দিকে ইউরো বিক্রি করব। শুধুমাত্র যদি ইউরোজোনের পরিষেবার PMI প্রতিবেদনে বৃদ্ধি পরিলক্ষিত হয় তাহলে আপনি আজ ইউরোর দর বৃদ্ধির উপর নির্ভর করতে পারেন। কেনার আগে, নিশ্চিত করুন যে MACD সূচকটি শূন্যের উপরে রয়েছে এবং শূন্যের উপরে উঠতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নং 2. MACD সূচকটি ওভারসোল্ড জোনে থাকাকালীন সময়ে 1.0739 এর লেভেলে মূল্যের পরপর দুটি টেস্টের ক্ষেত্রেও আমি আজ ইউরো কিনতে যাচ্ছি। এটি এই ইন্সট্রুমেন্টের মূল্যের নিম্নগামী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করবে এবং বাজারদরকে বিপরীতমুখী করে ঊর্ধ্বমুখী করবে। আমরা 1.0756 এবং 1.0800 এর বিপরীতমুখী লেভেলে এই পেয়ারের দর বৃদ্ধির আশা করতে পারি। সেল সিগন্যাল পরিস্থিতি নং 1. EUR/USD পেয়ারের মূল্য চার্টে লাল লাইন দ্বারা চিহ্নিত 1.0739 লেভেলে পৌঁছানোর পরে আমি ইউরো বিক্রি করার পরিকল্পনা করছি। লক্ষ্যমাত্রা হবে 1.0705 এর লেভেল, যেখানে আমি মার্কেট থেকে বের হয়ে অবিলম্বে বিপরীত দিকে ইউরো কিনতে যাচ্ছি (এই লেভেল থেকে 20-25 পিপস ঊর্ধ্বমুখী মুভমেন্টের আশা করছি)। ইউরোজোন পরিষেবা খাতে তীব্র সংকোচনের ক্ষেত্রে EUR/USD-এর উপর চাপ বাড়বে। বিক্রি করার আগে, নিশ্চিত করুন যে MACD সূচকটি শূন্যের নিচে রয়েছে এবং এটি থেকে নিচে নামতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নং 2. MACD সূচকটি ওভারবট জোনে থাকাকালীন সময়ে 1.0756-এর লেভেলে মূল্যের পরপর দুটি টেস্টের ক্ষেত্রেও আমি আজ ইউরো বিক্রি করতে যাচ্ছি। এটি এই পেয়ারের মূল্যের ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করবে এবং বাজারদরকে বিপরীতমুখী করে নিম্নমুখী করবে। আমরা 1.0739 এবং 1.0705 এর বিপরীতমুখী লেভেলে এই পেয়ারের দরপতনের আশা করতে পারি। চার্টে কী আছে: হালকা সবুজ লাইন - এন্ট্রি প্রাইস যেখানে আপনি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট কিনতে পারবেন গাঢ় সবুজ লাইন - আনুমানিক মূল্য যেখানে আপনি টেক-প্রফিট (TP) সেট করতে পারেন বা ম্যানুয়ালি মুনাফা নির্ধারণ করতে পারেন, কারণ এই লেভেলের উপরে আরও দর বৃদ্ধির সম্ভাবনা নেই। হালকা লাল লাইন - এন্ট্রি প্রাইস যেখানে আপনি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট বিক্রি করতে পারবেন গাঢ় লাল লাইন - আনুমানিক মূল্য যেখানে আপনি টেক-প্রফিট (TP) সেট করতে পারেন বা ম্যানুয়ালি মুনাফা নির্ধারণ করতে পারেন, কারণ এই লেভেলের নিচে আরও দরপতনের সম্ভাবনা নেই। MACD লাইন - মার্কেটে এন্ট্রি করার সময়, ওভারবট এবং ওভারসোল্ড জোন দ্বারা পরিচালিত হওয়া গুরুত্বপূর্ণ। গুরুত্বপূর্ণ: নতুন ট্রেডারদের মার্কেটে এন্ট্রির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় খুব সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেদন প্রকাশের আগে, মূল্যের তীব্র ওঠানামা এড়াতে মার্কেটের বাইরে থাকাই ভাল। আপনি যদি সংবাদ প্রকাশের সময় ট্রেড করার সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে ক্ষতি কমাতে সর্বদা স্টপ অর্ডার দিন। স্টপ অর্ডার না দিয়ে, আপনি খুব দ্রুত আপনার সম্পূর্ণ ডিপোজিট হারাতে পারেন, বিশেষ করে যদি আপনি মানি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ব্যবহার না করেন এবং বড় ভলিউমে ট্রেড করেন। এবং মনে রাখবেন সফলভাবে ট্রেড করার জন্য আপনার ট্রেডিংয়ের একটি স্পষ্ট পরিকল্পনা থাকতে হবে। বর্তমান বাজার পরিস্থিতির উপর ভিত্তি করে ট্রেডিংয়ের স্বতঃস্ফূর্ত সিদ্ধান্ত একজন দৈনিক ট্রেডারের জন্য সহজাতভাবে ক্ষতির কারণ হতে পারে। Read more: https://ifxpr.com/4eQNEVq









InstaForexSushantay

Team Member

Total Post: 3072
From
Registered: 2014-11-17
 

EUR/USD পেয়ারের ট্রেডিংয়ের পরিকল্পনা, ৪ জুলাই বুধবারের ট্রেডের বিশ্লেষণ: EUR/USD পেয়ারের 1H চার্ট বুধবার ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার সাথে EUR/USD পেয়ারের ট্রেড করা হয়েছে, যা বেশ ন্যায্য ছিল। গতকাল, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে বেশ কয়েকটি অর্থনৈতিক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে, যা মার্কিন গ্রিনব্যাককে সমর্থন করেনি। বিশেষ করে, দিনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দুটি প্রতিবেদন - পরিষেবা খাত সংক্রান্ত আইএসএম এবং এডিপি থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনের ফলাফলে পূর্বাভাসের চেয়ে নিম্নমুখী মান পরিলক্ষিত হয়েছে। মনে রাখবেন যে আমাদের পূর্বাভাসের তুলনায় ঊর্ধ্বমুখী মানের উপর দৃষ্টি দেয়া উচিত, পূর্ববর্তী মাসের ফলাফলের উপর নয়। এ কারণেই আমরা দিনের দ্বিতীয়ার্ধে এই পেয়ারের মূল্যের বৃদ্ধি দেখতে পেয়েছি এবং সেই অনুযায়ী, মার্কিন ডলারের দরপতন হয়েছে। সত্যি কথা বলতে কি, মার্কিন সামষ্টিক প্রতিবেদন থেকে যদি এই ধরনের দুর্বল ফলাফল দেখা যেতে থাকে, তাহলে মার্কেটে বৈশ্বিক প্রযুক্তিগত চিত্রের প্রয়োজন অনুযায়ী এই পেয়ার কেনা এবং বিক্রি না করার আরও ভিত্তি থাকবে। আজ, স্বাধীনতা দিবসের ছুটি পালনে মার্কিন অর্থনৈতিক ক্যালেন্ডারে তেমন কিছু নেই, কিন্তু আগামীকাল, নন-ফার্ম পে-রোল এবং বেকারত্বের প্রতিবেদন সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে। যদি সেগুলোর ফলাফল দুর্বল হয় তবে ডলারের আবার দরপতন হবে। EUR/USD পেয়ারের 5M চার্ট 5 মিনিটের টাইমফ্রেমে এই পেয়ারের শুধুমাত্র একটি ট্রেডিং সিগন্যাল তৈরি হয়েছে। দিনের একেবারে শেষে, ইউরোর মূল্য 1.0797-1.0804 এর এরিয়ায় পৌঁছেছে এবং সেখান থেকে আবার বাউন্স করেছে। ইউরোপীয় ট্রেডিং সেশনের একেবারে শুরুতে ট্রেডাররা একটি চমৎকার সুযোগ (দুর্ভাগ্যবশত) হারিয়েছিল যখন মূল্য 1.0726-1.0733 এরিয়ায় মাত্র কয়েক পিপসের জন্য পৌঁছাতে পারেনি। এটা সেল সিগন্যাল এক্সিকিউট করা সম্ভব ছিল, এবং আজ এই পেয়ারের মূল্য নিম্নমুখী কারেকশন করতে পারে। যাইহোক, এই পেয়ারের মূল্যের অস্থিরতার মাত্রা আবার খুব কম থাকতে পারে। বৃহস্পতিবারে ট্রেডিংয়ের পরামর্শ: এক ঘন্টার চার্টে, EUR/USD পেয়ারের মূল্য 1.0678 লেভেল ব্রেক করতে পারেনি এবং এই সপ্তাহের অর্থনৈতিক প্রতিবেদনগুলোর ফলাফল বেশিরভাগই ডলারের পরিবর্তে ইউরোকে সমর্থন করেছে। অতএব, ইউরোর মূল্যের উত্থান বেশ অনুমানযোগ্য ছিল। এই মুভমেন্টের কারণে, সামগ্রিক (নিম্নমুখী) প্রবণতা পরিবর্তিত হয়নি, তবে গত 7-8 মাস ধরে প্রায়ই শক্তিশালী কারেকশনের সাথে ইউরোর ট্রেড করা হচ্ছে। আনুষ্ঠানিকভাবে, ইউরোর মূল্য কমছে, যেমনটি হায়ার টাইমফ্রেমে দেখা যাচ্ছে, তবে প্রক্রিয়াটি অত্যন্ত ধীরগতিতে হচ্ছে। আজ, ট্রেডাররা আশা করতে পারেন যে এই পেয়ারের মূল্য কমে যাবে, তবে সম্ভবত, দিনের বেশিরভাগ সময় মূল্য এক জায়গায় স্থির থাকবে। অতএব, ট্রেডারদের এই পেয়ারের মূল্যের শক্তিশালী মুভমেন্টের উপর নির্ভর করা উচিত নয়। 5M চার্টের মূল লেভেলগুলো হল 1.0483, 1.0526, 1.0568, 1.0611, 1.0678, 1.0726-1.0733, 1.0797-1.0804, 1.0838-1.0856, 1.0888-1.0896, 1.0940, 1.0971-1.0981। বৃহস্পতিবার ইউরোজোন বা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কোনও উল্লেখযোগ্য ইভেন্ট নির্ধারিত নেই, তাই আমরা সম্ভবত একটি "বিরক্ত বৃহস্পতিবার" দেখতে পাওয়ার অপেক্ষায় আছি। Read more:  https://ifxpr.com/3xUMM1r









InstaForexSushantay

Team Member

Total Post: 3072
From
Registered: 2014-11-17
 

EUR/USD পেয়ারের ট্রেডিংয়ের পরিকল্পনা, ৮ জুলাই শুক্রবারের ট্রেডের বিশ্লেষণ: EUR/USD পেয়ারের 1H চার্ট সামষ্টিক প্রতিবেদনের শক্তিশালী ফলাফল এবং ইউরোপীয় সেন্ট্রাল ব্যাঙ্কের প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিন লাগার্ডের বক্তৃতা সত্ত্বেও, EUR/USD পেয়ারের মূল্যের শুধুমাত্র 43 পিপসের অস্থিরতা পরিলক্ষিত হয়েছে। এবং এই পেয়ারের মূলের এই পরিমাণ অস্থিরতা পাঁচ মিনিটের মধ্যে প্রদর্শিত হয়েছিল যখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে নন-ফার্ম পেরোল এবং বেকারত্বের প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছিল। উভয় প্রতিবেদনের ফলাফলই পূর্বাভাসের চেয়ে দুর্বল বলে প্রমাণিত হয়েছে, যা মার্কিন গ্রিনব্যাকের নতুন দরপতন ঘটাতে পারে। সামগ্রিকভাবে, মার্কিন মুদ্রার মূল্য কমেছে, কিন্তু সামগ্রিকভাবে দৈনিক অস্থিরতার পরিমাণ আগের মতোই রয়েছে। আমরা ক্রমাগত এই বিষয়টি তুলে ধরেছি যে এই পেয়ারের মূল্যের খুব দুর্বল মুভমেন্ট দেখা যাচ্ছে, কারণ এই মুহূর্তে এটিই মূল বিষয়। অতএব, আমরা দুটি সিদ্ধান্তে আসতে পারি। প্রথমত, এমনকি 5-মিনিটের টাইমফ্রেমেও 2-3 দিনের জন্য যেকোন ট্রেড ওপেন করে রাখা যেতে পারে। দ্বিতীয়ত, এই মুহূর্তে উচ্চ মুনাফার আশা করা অত্যন্ত কঠিন, এবং প্রতিদিন সিগন্যাল তৈরি নাও হতে পারে, যদিও আমরা সবচেয়ে লোয়ার টাইমফ্রেম বিবেচনা করছি। EUR/USD পেয়ারের 5M চার্ট 5 মিনিটের টাইমফ্রেমে দুটি ট্রেডিং সিগন্যাল তৈরি হয়েছিল, এবং এই দুটি সিগন্যাল নিয়ে কাজ করার কোন অর্থ ছিল না। উভয় সিগন্যালই গুরুত্বপূর্ণ মার্কিন সামষ্টিক প্রতিবেদন প্রকাশের সময় তৈরি হয়েছিল, তাই অন্তত একটি ট্রেড ওপেন করাও খুব কঠিন ছিল। এটি বলার অপেক্ষা রাখে না যে 5 মিনিটের মধ্যে গঠিত সিগন্যালগুলো বিভিন্ন দিকে নির্দেশ করছিল। যাই হোক না কেন, নন-ফার্ম পেরোল এবং বেকারত্বের প্রতিবেদন প্রকাশের আগে মার্কেটে এন্ট্রি করা বেশ বিপজ্জনক ছিল। একমাত্র বিকল্প ছিল বৃহস্পতিবার থেকে লং পজিশন ধরে রাখা যখন মূল্য 1.0797-1.0804 এর এরিয়া অতিক্রম করে। সোমবারে ট্রেডিংয়ের পরামর্শ: এক ঘন্টার চার্টে, EUR/USD পেয়ারের মূল্য 1.0678 লেভেলের মধ্য দিয়ে ব্রেক করে যেতে পারেনি, এবং সাম্প্রতিক অর্থনৈতিক প্রতিবেদনগুলোর ফলাফল বেশিরভাগই ডলারের পরিবর্তে ইউরোকে সমর্থন করেছে। অতএব, আমরা ইউরোর মূল্যের মোটামুটি ধারাবাহিক বৃদ্ধি দেখেছি। এই ধরনের মুভমেন্টের কারণে, সামগ্রিক (নিম্নমুখী) প্রবণতা পরিবর্তিত হয়নি, তবে গত 7-8 মাস ধরে খুব ঘন ঘন এবং শক্তিশালী কারেকশনের সাথে ইউরোর ট্রেড করা হচ্ছে। আনুষ্ঠানিকভাবে, ইউরোর মূল্যের নিম্নমুখী প্রবণতা বিরাজ করছে, যেমনটি হায়ার টাইম ফ্রেমে পরিলক্ষিত হচ্ছে, তবে মধ্যমেয়াদে এই পেয়ারের দরপতনের প্রক্রিয়াটি অত্যন্ত মন্থর। সোমবার, নতুন ট্রেডাররা 1.0838-1.0856 এরিয়া থেকে ট্রেড করতে পারে। যাইহোক, অনুগ্রহ করে মনে রাখবেন যে এই পেয়ারের মূল্যের খুব স্বল্প মাত্রার অস্থিরতা দেখা যেতে পারে। 5M চার্টের মূল লেভেলগুলো হল 1.0483, 1.0526, 1.0568, 1.0611, 1.0678, 1.0726-1.0733, 1.0797-1.0804, 1.0838-1.0856, 1.0888-1.0896, 1.0940, 1.0971-1.0981। সোমবারে ইউরোজোন বা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কোনও গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্ট নির্ধারিত নেই। ফলে, এই পেয়ারের মূল্যের অস্থিরতার মাত্রা অত্যন্ত কম থাকতে পারে। ট্রেডিংয়ের মূল নিয়মাবলী: 1) সিগন্যাল গঠন করতে কতক্ষণ সময় নেয় তার উপর ভিত্তি করে সিগন্যালের শক্তি নির্ধারণ করা হয় (রিবাউন্ড বা লেভেলের ব্রেকআউট)। যত দ্রুত এটি গঠিত হয়, সিগন্যাল তত শক্তিশালী হয়। 2) যদি ফলস সিগন্যালের উপর ভিত্তি করে নির্দিষ্ট লেভেলের কাছাকাছি দুটি বা ততোধিক পজিশন খোলা হয় (যা টেক প্রফিট শুরু করেনি বা নিকটতম লক্ষ্যমাত্রায় পৌছায়নি), তাহলে এই লেভেলে প্রাপ্ত পরবর্তী সমস্ত সিগন্যাল উপেক্ষা করা উচিত। 3) ফ্ল্যাট মার্কেটের সময়, যেকোন পেয়ারের একাধিক ফলস সিগন্যাল তৈরি হতে পারে বা কোন সিগন্যালের গঠন নাও হতে পারে। যাই হোক না কেন, ফ্ল্যাট মুভমেন্টের ইঙ্গিত পাওয়া মাত্র ট্রেডিং বন্ধ করাই ভালো। 4) ইউরোপীয় সেশনের শুরু থেকে মার্কিন ট্রেডিং সেশনের মাঝামাঝি সময়ে ট্রেডগুলো খোলা উচিত যখন সমস্ত পজিশন ম্যানুয়ালি ক্লোজ করতে হবে। 5) আপনি 30-মিনিটের টাইম ফ্রেমে MACD সূচক থেকে সিগন্যাল ব্যবহার করে ট্রেড করতে পারেন, তবে এটি শুধুমাত্র শক্তিশালী অস্থিরতার মধ্যে ব্যবহার করা উচিত এবং একটি স্পষ্ট প্রবণতা থাকতে হবে যা ট্রেন্ডলাইন বা ট্রেন্ড চ্যানেল দ্বারা নিশ্চিত হওয়া উচিত। 6) যদি দুটি লেভেল একে অপরের খুব কাছাকাছি অবস্থিত হয় (5 থেকে 15 পিপস পর্যন্ত), সেগুলোকে সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লেভেল হিসাবে বিবেচনা করা উচিত। চার্ট কীভাবে বুঝতে হয়: সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লেভেলগুলো হল সেই লেভেল যা কারেন্সি পেয়ার কেনা বা বিক্রি করার সময় লক্ষ্যমাত্রা হিসাবে কাজ করে। আপনি এই লেভেলগুলোর কাছাকাছি টেক প্রফিট সেট করতে পারেন। লাল লাইন হল চ্যানেল বা ট্রেন্ড লাইন যা বর্তমান প্রবণতা প্রদর্শন করে এবং দেখায় যে এখন কোন দিকে ট্রেড করা ভাল হবে। MACD নির্দেশক (14, 22, এবং 3) একটি হিস্টোগ্রাম এবং একটি সিগন্যাল লাইন নিয়ে গঠিত। যখন মূল্য এগুলো অতিক্রম করে, সেটি মার্কেটে এন্ট্রির একটি সিগন্যাল। ট্রেন্ড প্যাটার্ন (চ্যানেল এবং ট্রেন্ডলাইন) এর সাথে এই সূচকটি ব্যবহার করার পরামর্শ দেওয়া হয়। গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা এবং অর্থনৈতিক প্রতিবেদন অর্থনৈতিক ক্যালেন্ডারে পাওয়া যেতে পারে এবং এগুলো একটি কারেন্সি পেয়ারের মূল্যের মুভমেন্টকে মারাত্মকভাবে প্রভাবিত করতে পারে। অতএব, সেগুলোর প্রকাশের সময়, আমরা মূল্যের তীব্র ওঠানামা এড়াতে যতটা সম্ভব সাবধানে ট্রেড করার বা বাজার থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিই। ফরেক্সে নতুন ট্রেডারদের মনে রাখা উচিত যে প্রতিটি ট্রেড লাভজনক হতে হবে না। একটি সুস্পষ্ট কৌশল এবং অর্থ ব্যবস্থাপনার বিকাশ হল দীর্ঘ মেয়াদে ট্রেডিংয়ে সাফল্যের চাবিকাঠি।   https://ifxpr.com/3VNp7rC









InstaForexSushantay

Team Member

Total Post: 3072
From
Registered: 2014-11-17
 

EUR/USD: ইউরোপীয় সেশনে নতুন ট্রেডারদের জন্য ট্রেডিংয়ের পরামর্শ, ৯ জুলাই EUR/USD পেয়ারের ট্রেডিংয়ের পর্যালোচনা ও পরামর্শ দিনের দ্বিতীয়ার্ধে যখন MACD সূচকটি শূন্যের উল্লেখযোগ্য উপরে উঠে গিয়েছিল তখন এই পেয়ারের মূল্য 1.0844 এর লেভেল টেস্ট করেছিল, যা স্পষ্টভাবেই এই পেয়ারের মূল্যের ঊর্ধ্বগামী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করেছিল। এই কারণে, আমি ইউরো কিনিনি। 1.0844-এর দ্বিতীয় টেস্টটি যখন ঘটেছিল তখন MACD সূচকটি ইতোমধ্যেই ওভারবট জোনে ছিল এবং ধীরে ধীরে সেখান থেকে হ্রাস পাচ্ছে, যাতে ট্রেডাররা ইউরোর সেল সিগন্যালের পরিস্থিতি নং 2 বাস্তবায়ন করতে পারে। ফলস্বরূপ, পেয়ারটির মূল্য প্রায় 20 পিপস কমেছে, যা দৈনিক অস্থিরতার মাত্রার অর্ধেকেরও বেশি। সেন্টিক্স থেকে ইউরোজোন বিনিয়োগকারী আস্থা সূচক এবং জার্মানির ট্রেড ব্যালেন্স সংক্রান্ত প্রতিবেদনের ফলাফল হতাশাজনক ছিল, যা ইউরোর চাহিদা কমে যাওয়ার প্রথম কারণ ছিল৷ দ্বিতীয় কারণ হল আজ কোন গুরুত্বপূর্ণ সামষ্টিক অর্থনৈতিক প্রতিবেদন প্রকাশের কথা নেই এবং ফেডারেল রিজার্ভের চেয়ারম্যান জেরোম পাওয়েল মার্কিন সিনেট ব্যাংকিং কমিটির সামনে বক্তব্য রাখতে যাচ্ছেন। তবে আমরা মার্কিন সেশনের পূর্বাভাসে এটি নিয়ে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব। আপাতত, ইউরোপীয় সেশন চলাকালীন সময়ে, চ্যানেলের মধ্যে ট্রেড করা উচিত হবে কারণ ইউরোর মূল্যের কোন নির্দিষ্ট দিকে যাওয়ার সম্ভাবনা নেই। দৈনিক কৌশল হিসাবে, আমি পরিস্থিতি নং 1 এবং 2 বাস্তবায়নের উপর বেশি নির্ভর করব। বাই সিগন্যাল পরিস্থিতি নং 1. আজ যখন মূল্য 1.0879 লেভেলে বৃদ্ধির লক্ষ্যে 1.0844 এর (চার্টে সবুজ লাইন দ্বারা চিহ্নিত) লেভেলে পৌঁছাবে, তখন আপনি ইউরো কিনতে পারেন। মূল্য 1.0879-এর লেভেলে গেলে, আমি মার্কেট থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছি এবং এন্ট্রি পয়েন্ট থেকে 30-35 পিপসের মুভমেন্টের উপর নির্ভর করে বিপরীত দিকে ইউরো বিক্রি করব। আমরা আশা করছি না যে দিনের প্রথমার্ধে ইউরোর মূল্য বৃদ্ধি পাবে। কেনার আগে, নিশ্চিত করুন যে MACD সূচকটি শূন্যের উপরে রয়েছে এবং শূন্যের উপরে উঠতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নং 2. MACD সূচকটি ওভারসোল্ড জোনে থাকাকালীন সময়ে 1.0815 এর লেভেলে মূল্যের পরপর দুটি টেস্টের ক্ষেত্রেও আমি আজ ইউরো কিনতে যাচ্ছি। এটি এই ইন্সট্রুমেন্টের মূল্যের নিম্নগামী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করবে এবং বাজারদরকে বিপরীতমুখী করে ঊর্ধ্বমুখী করবে। আমরা 1.0844 এবং 1.0879 এর বিপরীতমুখী লেভেলে এই পেয়ারের দর বৃদ্ধির আশা করতে পারি। সেল সিগন্যাল পরিস্থিতি নং 1. EUR/USD পেয়ারের মূল্য চার্টে লাল লাইন দ্বারা চিহ্নিত 1.0815 লেভেলে পৌঁছানোর পরে আমি ইউরো বিক্রি করার পরিকল্পনা করছি। লক্ষ্যমাত্রা হবে 1.0770 এর লেভেল, যেখানে আমি মার্কেট থেকে বের হয়ে অবিলম্বে বিপরীত দিকে ইউরো কিনতে যাচ্ছি (এই লেভেল থেকে 20-25 পিপস ঊর্ধ্বমুখী মুভমেন্টের আশা করছি)। যদি এই পেয়ারের মূল্য সাপ্তাহিক সর্বোচ্চ লেভেলের কাছাকাছি কনসলিডেট করতে ব্যর্থ হয় তাহলে আজ EUR/USD এর উপর চাপ ফিরে আসবে। বিক্রি করার আগে, নিশ্চিত করুন যে MACD সূচকটি শূন্যের নিচে রয়েছে এবং এটি থেকে নিচে নামতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নং 2. MACD সূচকটি ওভারবট জোনে থাকাকালীন সময়ে 1.0844-এর লেভেলে মূল্যের পরপর দুটি টেস্টের ক্ষেত্রেও আমি আজ ইউরো বিক্রি করতে যাচ্ছি। এটি এই পেয়ারের মূল্যের ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করবে এবং বাজারদরকে বিপরীতমুখী করে নিম্নমুখী করবে। আমরা 1.0815 এবং 1.0770 এর বিপরীতমুখী লেভেলে এই পেয়ারের দরপতনের আশা করতে পারি। চার্টে কী আছে: হালকা সবুজ লাইন - এন্ট্রি প্রাইস যেখানে আপনি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট কিনতে পারবেন গাঢ় সবুজ লাইন - আনুমানিক মূল্য যেখানে আপনি টেক-প্রফিট (TP) সেট করতে পারেন বা ম্যানুয়ালি মুনাফা নির্ধারণ করতে পারেন, কারণ এই লেভেলের উপরে আরও দর বৃদ্ধির সম্ভাবনা নেই। হালকা লাল লাইন - এন্ট্রি প্রাইস যেখানে আপনি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট বিক্রি করতে পারবেন গাঢ় লাল লাইন - আনুমানিক মূল্য যেখানে আপনি টেক-প্রফিট (TP) সেট করতে পারেন বা ম্যানুয়ালি মুনাফা নির্ধারণ করতে পারেন, কারণ এই লেভেলের নিচে আরও দরপতনের সম্ভাবনা নেই। MACD লাইন - মার্কেটে এন্ট্রি করার সময়, ওভারবট এবং ওভারসোল্ড জোন দ্বারা পরিচালিত হওয়া গুরুত্বপূর্ণ। গুরুত্বপূর্ণ: নতুন ট্রেডারদের মার্কেটে এন্ট্রির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় খুব সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেদন প্রকাশের আগে, মূল্যের তীব্র ওঠানামা এড়াতে মার্কেটের বাইরে থাকাই ভাল। আপনি যদি সংবাদ প্রকাশের সময় ট্রেড করার সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে ক্ষতি কমাতে সর্বদা স্টপ অর্ডার দিন। স্টপ অর্ডার না দিয়ে, আপনি খুব দ্রুত আপনার সম্পূর্ণ ডিপোজিট হারাতে পারেন, বিশেষ করে যদি আপনি মানি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ব্যবহার না করেন এবং বড় ভলিউমে ট্রেড করেন। এবং মনে রাখবেন সফলভাবে ট্রেড করার জন্য আপনার ট্রেডিংয়ের একটি স্পষ্ট পরিকল্পনা থাকতে হবে। বর্তমান বাজার পরিস্থিতির উপর ভিত্তি করে ট্রেডিংয়ের স্বতঃস্ফূর্ত সিদ্ধান্ত একজন দৈনিক ট্রেডারের জন্য সহজাতভাবে ক্ষতির কারণ হতে পারে। Read more: https://ifxpr.com/45UgsZj









InstaForexSushantay

Team Member

Total Post: 3072
From
Registered: 2014-11-17
 

ফেড মুদ্রাস্ফীতির চেয়ে শ্রমবাজারের পরিস্থিতির দিকে বেশি নজর রাখছে ফেডারেল রিজার্ভের চেয়ারম্যান জেরোম পাওয়েলের গতকালের বক্তৃতায় ইউরো এবং ব্রিটিশ পাউন্ড উল্লেখযোগ্যভাবে প্রভাবিত হয়নি, যিনি বলেছিলেন যে ঋণের উচ্চ ব্যয়ের কারণে ফেডের কর্মকর্তারা শ্রমবাজারের সম্ভাব্য ঝুঁকি সম্পর্কে ক্রমবর্ধমানভাবে উদ্বিগ্ন। এটি এই ইঙ্গিত দেয় যে মার্কিন নিয়ন্ত্রক সংস্থা হকিশ বা কঠোর অবস্থান বজায় রেখেছে, তারা মুদ্রাস্ফীতির কমার নতুন প্রমাণ খুঁজতে থাকবে। মঙ্গলবার আইন প্রণেতাদের সাথে কথা বলার সময়, পাওয়েল সতর্ক ছিলেন এবং বিনিয়োগকারীরা এই বছরের সেপ্টেম্বরের প্রথম দিকে নীতিমালার প্রথম নমনীয়করণ ঘটার প্রত্যাশা করলেও তিনি সুদের হার কমানোর জন্য কোন সময়সীমা দেননি। এটি লক্ষ করা গুরুত্বপূর্ণ যে পাওয়েল প্রথমবারের মতো অস্থিতিশীল শ্রমবাজারের ক্রমবর্ধমান ইঙ্গিতের উপর জোর দিয়েছিলেন যখন 5 জুলাই প্রকাশিত সরকারী প্রতিবেদনে টানা তৃতীয় মাসে বেকারত্ব বৃদ্ধি পেয়েছিল। "অধিক মূল্যস্ফীতিই একমাত্র ঝুঁকি নয়," পাওয়েল সিনেট ব্যাংকিং কমিটির কাছে তার মন্তব্যে বলেছিলেন। "সাম্প্রতিক তথ্যে দেখা গেছে যে শ্রম বাজারের অবস্থা এক বছর আগের তুলনায় উল্লেখযোগ্যভাবে খারাপ হয়েছে, যা উদ্বেগজনক," তিনি যোগ করেছেন। আজ, ফেড চেয়ারম্যান হাউস ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস কমিটির সামনে দ্বিতীয় বক্তৃতা দেবেন, তিনি গতকাল সিনেটে যা বলেছেন সম্ভবত সেটাই আবার পুনর্ব্যক্ত করবেন। স্পষ্টতই, শ্রমবাজারের নেতিবাচক প্রবণতা এবং মুদ্রাস্ফীতি পরিস্থিতির উন্নতির মধ্যে, মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংক প্রায় এক বছর ধরে দুই দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ স্তরে রাখার পর ক্রমবর্ধমানভাবে সুদের হার কমানোর কথা বিবেচনা করছে। এটি লক্ষ্য করা গুরুত্বপূর্ণ যে পাওয়েল ধীরে ধীরে মুদ্রাস্ফীতি থেকে শ্রমবাজারের দিকে দৃষ্টি সরিয়ে নিচ্ছেন। যদি আগামীকালের মূল্যস্ফীতির প্রতিবেদন আবার উত্সাহজনক হয়, তবে ফেড শীঘ্রই সুদের হার কমানোর প্রয়োজনীয়তা নিয়ে আরও সক্রিয়ভাবে আলোচনা করবে। যাইহোক, যেমনটি আমি উপরে উল্লেখ করেছি, ফেড চেয়ারম্যান জোর দিয়ে বলেছিলেন যে খুব তাড়াতাড়ি বা খুব উল্লেখযোগ্যভাবে সুদের হার কমানোর সিদ্ধান্ত মুদ্রাস্ফীতির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের অগ্রগতিকে থামিয়ে দিতে বা বিপরীতমুখী করতে পারে, যা 2022 সালের জুনের 7.1% থেকে এ হছরের মে পর্যন্ত 2.6%-এ নেমে এসেছে। "ইতিবাচক প্রতিবেদন আমাদের আত্মবিশ্বাসকে শক্তিশালী করবে যে মুদ্রাস্ফীতি স্থিরভাবে 2% এর দিকে নেমে যাচ্ছে," পাওয়েল বলেছেন। এই বছরের শুরুর দিকে মার্কিন মুদ্রাস্ফীতি অপ্রত্যাশিতভাবে বৃদ্ধি পেলেও এখন দেশটির মুদ্রাস্ফীতি আবার মন্থর হচ্ছে বলে সাম্প্রতিক তথ্য়ে জানা গেছে। যাইহোক, ফেডের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তারা বারবার বলেছেন যে তাদের আরও আত্মবিশ্বাসের প্রয়োজন যে এই প্রবণতা অব্যাহত থাকবে। আগামীকাল প্রত্যাশিত মাসিক ভোক্তা মূল্য সূচকের প্রতিবেদনে জুনে মূল মুদ্রাস্ফীতির 0.2% বৃদ্ধি দেখাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ডেমোক্র্যাটরা গতকাল পাওয়েলকে উচ্চ সুদের হারের সম্ভাব্য অর্থনৈতিক ঝুঁকি সম্পর্কে সতর্ক করেছিলেন, তারা ক্রমবর্ধমান বেকারত্ব, আবাসন ব্যয় বৃদ্ধি এবং উত্পাদন খাতে মন্দার দিকে ইঙ্গিত করেছেন। রিপাবলিকানরা বেশিরভাগই নেতিবাচক মন্তব্য করা থেকে বিরত ছিলেন। EUR/USD-এর বর্তমান প্রযুক্তিগত চিত্র অনুযায়ী, ক্রেতাদের মূল্যকে 1.0845 লেভেলের নেওয়ার উপর মনোযোগ দিতে হবে। শুধুমাত্র এটি করা গেলে মূল্যের 1.0870 লেভেলের টেস্টের লক্ষ্য নির্ধারণ করার সুযোগ পাওয়া যাবে। সেখান থেকে, এই পেয়ারের মূল্য 1.0900 পর্যন্ত যেতে পারে, কিন্তু মেজর প্লেয়ারদের সমর্থনে এটি করা সহজ হবে। চূড়ান্ত লক্ষ্য হল সর্বোচ্চ 1.0940 এর লেভেল। যদি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্টের মূল্য কমে যায়, আমি 1.0810 এর কাছাকাছি বড় ক্রেতাদের কাছ থেকে উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপের আশা করছি। যদি সেখানে কেউ সক্রিয় না থাকে, তাহলে মূল্যের 1.0785 এর সর্বনিম্নে নেমে যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করা বা 1.0760 থেকে লং পজিশন ওপেন করার জন্য অপেক্ষা করা উচিত হবে। GBP/USD এর বর্তমান প্রযুক্তিগত চিত্র অনুযায়ী, পাউন্ডের ক্রেতাদের মূল্যকে 1.2800-এর নিকটতম রেজিস্ট্যান্সে নিয়ে যেতে হবে। শুধুমাত্র এটিই এই পেয়ারের মূল্যের 1.2830 এর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণের সুযোগ দেবে, যে লেভেলটি অতিক্রম করা চ্যালেঞ্জিং হবে। চূড়ান্ত লক্ষ্য হল 1.2860 এরিয়া, যার পরে আমরা 1.2890 এর দিকে পাউন্ডের মূল্যের তীব্র বৃদ্ধি নিয়ে আলোচনা করতে পারি। যদি এই পেয়ারের মূল্য হ্রাস পায়, তাহলে বিক্রেতারা 1.2765 এর নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করবে। যদি তারা এটি করতে পারে, তাহলে সেটি এই রেঞ্জ ব্রেক করে ক্রেতাদের অবস্থানকে মারাত্মকভাবে আঘাতপ্রাপ্ত করবে এবং GBP/USD পেয়ারের মূল্যকে 1.2735 এর সর্বনিম্ন বা 1.2707-এ পৌঁছানোর সম্ভাবনার দিকে ঠেলে দেবে। Read more:  https://ifxpr.com/45XvgGC









InstaForexSushantay

Team Member

Total Post: 3072
From
Registered: 2014-11-17
 

EUR/USD পেয়ারের ট্রেডিংয়ের পর্যালোচনা ও পরামর্শ দুর্ভাগ্যবশত, মার্কেটে স্বল্প মাত্রার অস্থিরতার কারণে, আমি গতকাল যে লেভেলগুলোর কথা উল্লেখ করেছিলাম সেগুলোর কোন হয়নি। একই কারণে, আমি ইউরোর ট্রেডিং থেকে দূরে থেকেছি। মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে ফেডারেল রিজার্ভের চেয়ারম্যান জেরোম পাওয়েলের বক্তৃতা মার্কেটে কোনো প্রভাব ফেলেনি। ফেডারেল রিজার্ভের অন্যান্য নীতিনির্ধারকদের বক্তৃতা ছাড়া অন্য কোন প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়নি, যা মার্কেটের ট্রেডিং ভলিউমকে প্রভাবিত করেছিল। যাইহোক, আজ পরিস্থিতির পরিবর্তন হতে পারে। আজ সকালে, জার্মানির কনজিউমার প্রাইস ইনডেক্স (সিপিআই) এবং হারমোনাইজড ইনডেক্স অফ কনজিউমার প্রাইস (এইচআইসিপি) এর প্রতিবেদন এই পেয়ারের মূল্যের অস্থিরতার মাত্রা বাড়াতে পারে, তবে মার্কিন সেশনে আরও উল্লেখযোগ্য ইভেন্ট নির্ধারিত হয়েছে, যা নিয়ে আমরা দিনের দ্বিতীয়ার্ধের পরবর্তী পূর্বাভাসে আলোচনা করব। ব্যক্তিগতভাবে, আমি মনে করি না যে ইউরোপীয় ট্রেডিং সেশনের সময় এই পেয়ারের মূল্য হরিজন্টাল চ্যানেল থেকে বেরিয়ে আসতে সক্ষম হবে। দৈনিক কৌশল হিসাবে, আমি পরিস্থিতি নং 2 বাস্তবায়নের উপর বেশি নির্ভর করব। বাই সিগন্যাল পরিস্থিতি নং 1. আজ যখন মূল্য 1.0890 লেভেলে বৃদ্ধির লক্ষ্যে 1.0853 এর (চার্টে সবুজ লাইন দ্বারা চিহ্নিত) লেভেলে পৌঁছাবে, তখন আপনি ইউরো কিনতে পারেন। মূল্য 1.0890-এর লেভেলে গেলে, আমি মার্কেট থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছি এবং এন্ট্রি পয়েন্ট থেকে 30-35 পিপসের মুভমেন্টের উপর নির্ভর করে বিপরীত দিকে ইউরো বিক্রি করব। আমরা আশা করছি না যে দিনের প্রথমার্ধে ইউরোর মূল্য বৃদ্ধি পাবে। কেনার আগে, নিশ্চিত করুন যে MACD সূচকটি শূন্যের উপরে রয়েছে এবং শূন্যের উপরে উঠতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নং 2. MACD সূচকটি ওভারসোল্ড জোনে থাকাকালীন সময়ে 1.0825 এর লেভেলে মূল্যের পরপর দুটি টেস্টের ক্ষেত্রেও আমি আজ ইউরো কিনতে যাচ্ছি। এটি এই ইন্সট্রুমেন্টের মূল্যের নিম্নগামী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করবে এবং বাজারদরকে বিপরীতমুখী করে ঊর্ধ্বমুখী করবে। আমরা 1.0853 এবং 1.0890 এর বিপরীতমুখী লেভেলে এই পেয়ারের দর বৃদ্ধির আশা করতে পারি। সেল সিগন্যাল পরিস্থিতি নং 1. EUR/USD পেয়ারের মূল্য চার্টে লাল লাইন দ্বারা চিহ্নিত 1.0825 লেভেলে পৌঁছানোর পরে আমি ইউরো বিক্রি করার পরিকল্পনা করছি। লক্ষ্যমাত্রা হবে 1.0790 এর লেভেল, যেখানে আমি মার্কেট থেকে বের হয়ে অবিলম্বে বিপরীত দিকে ইউরো কিনতে যাচ্ছি (এই লেভেল থেকে 20-25 পিপস ঊর্ধ্বমুখী মুভমেন্টের আশা করছি)। যদি এই পেয়ারের মূল্য দৈনিক সর্বোচ্চ লেভেলের কাছাকাছি থাকতে ব্যর্থ হয় তাহলে আজ EUR/USD এর উপর চাপ ফিরে আসবে। বিক্রি করার আগে, নিশ্চিত করুন যে MACD সূচকটি শূন্যের নিচে রয়েছে এবং এটি থেকে নিচে নামতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নং 2. MACD সূচকটি ওভারবট জোনে থাকাকালীন সময়ে 1.0853-এর লেভেলে মূল্যের পরপর দুটি টেস্টের ক্ষেত্রেও আমি আজ ইউরো বিক্রি করতে যাচ্ছি। এটি এই পেয়ারের মূল্যের ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার সম্ভাবনাকে সীমিত করবে এবং বাজারদরকে বিপরীতমুখী করে নিম্নমুখী করবে। আমরা 1.0825 এবং 1.0790 এর বিপরীতমুখী লেভেলে এই পেয়ারের দরপতনের আশা করতে পারি। চার্টে কী আছে: হালকা সবুজ লাইন - এন্ট্রি প্রাইস যেখানে আপনি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট কিনতে পারবেন গাঢ় সবুজ লাইন - আনুমানিক মূল্য যেখানে আপনি টেক-প্রফিট (TP) সেট করতে পারেন বা ম্যানুয়ালি মুনাফা নির্ধারণ করতে পারেন, কারণ এই লেভেলের উপরে আরও দর বৃদ্ধির সম্ভাবনা নেই। হালকা লাল লাইন - এন্ট্রি প্রাইস যেখানে আপনি এই ট্রেডিং ইন্সট্রুমেন্ট বিক্রি করতে পারবেন গাঢ় লাল লাইন - আনুমানিক মূল্য যেখানে আপনি টেক-প্রফিট (TP) সেট করতে পারেন বা ম্যানুয়ালি মুনাফা নির্ধারণ করতে পারেন, কারণ এই লেভেলের নিচে আরও দরপতনের সম্ভাবনা নেই। MACD লাইন - মার্কেটে এন্ট্রি করার সময়, ওভারবট এবং ওভারসোল্ড জোন দ্বারা পরিচালিত হওয়া গুরুত্বপূর্ণ। গুরুত্বপূর্ণ: নতুন ট্রেডারদের মার্কেটে এন্ট্রির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় খুব সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেদন প্রকাশের আগে, মূল্যের তীব্র ওঠানামা এড়াতে মার্কেটের বাইরে থাকাই ভাল। আপনি যদি সংবাদ প্রকাশের সময় ট্রেড করার সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে ক্ষতি কমাতে সর্বদা স্টপ অর্ডার দিন। স্টপ অর্ডার না দিয়ে, আপনি খুব দ্রুত আপনার সম্পূর্ণ ডিপোজিট হারাতে পারেন, বিশেষ করে যদি আপনি মানি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ব্যবহার না করেন এবং বড় ভলিউমে ট্রেড করেন। এবং মনে রাখবেন সফলভাবে ট্রেড করার জন্য আপনার ট্রেডিংয়ের একটি স্পষ্ট পরিকল্পনা থাকতে হবে। বর্তমান বাজার পরিস্থিতির উপর ভিত্তি করে ট্রেডিংয়ের স্বতঃস্ফূর্ত সিদ্ধান্ত একজন দৈনিক ট্রেডারের জন্য সহজাতভাবে ক্ষতির কারণ হতে পারে। Read more:  https://ifxpr.com/45Xnht7